স্থাপত্য এবং প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের সমন্বয় চট্টগ্রামের সি আর বি

257
শেয়ার

সি আর বি, সেন্ট্রাল রেলওয়ে বিল্ডিং।বন্দর নগরী চট্টগ্রামে ব্রিটিশ উপনিবেশ শাসনামলে নির্মিত একটি দৃষ্টিনন্দন ভবন ।যা প্রতিষ্ঠিত হয় ১৮৭২ ক্রিস্টাব্দে। বন্দর নগরী চট্টগ্রামের পুরাতন ভবনগুলোর একটি এটি।

১৭৬৪ সালে ব্রিটিশ শাসকরা চট্টগ্রামের নিয়ন্ত্রণ নবাব মীর কাসিমের কাছ থেকে নেয়ার পর তাদের প্রশাসনিক কাজগুলি সহজলভ্য করার জন্য বেশ কয়েকটি ভবন নির্মাণ করেছিলো, সিআরবি ঐ ভবনগুলোর মধ্যে অন্যতম।

সি আর বি’র সামনেই দেখতে পাবেন পুরোনো ব্রিটিশ আমলের ডেমো ট্রেন যা সকলেরই নজর কাড়বে।তার ঠিক পাশেই আছে মুক্তিযুদ্ধের বীর শহীদদের স্মৃতি স্থাপনা। রয়েছে অপুর্ব স্থাপত্যের নিদর্শন হিসেবে ব্রিটিশ আমলে নির্মিত হাতি বাংলো।

সি আর বি তে বর্তমানে বাংলাদেশ রেলওয়ের পূর্বাঞ্চল অফিস এবং রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপকের কার্যালয় অবস্থিত।এখানে আরো রয়েছে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল।১৯৯৪ সালে নির্মিত এই হাসপাতালটি ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল হিসেবে অনুমোদনের অপেক্ষায়।

এখানে রয়েছে সাত রাস্তার মোড়।সি আর বি ভবনের সম্মুখের রাস্তার মাঝ বরাবর আছে সাত রাস্তার মোড়ের এরো সাইনবোর্ড, এই সাইনবোর্ডের মাধ্যমে সহজেই জেনে যাবেন সি আর বি’র ভেতরের সাতটি রাস্তার নাম। সি আর বি’র সামনে ডান পাশের নিচু অংশটি শিরিষতলা নামে পরিচিত ।এখানে বছরের বিভিন্ন সময়ে নানাবিধ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো, পহেলা বৈশাখ, বলি খেলা, বই মেলা, পিঠা উৎসব ইত্যাদি।

সি আর বি কবিতা প্রেমিক, কবি সাহিত্যিক সহ বিভিন্ন পেশার মানুষদের আড্ডাস্থল।পাহাড়ি পরিবেশে আঁকা বাকা রাস্তা আর অনেক শতবর্ষী বৃক্ষ দেখতে ছিমছাম ছবির মতো, এখানের প্রাকৃতিক দৃশ্য যে কারো মন ভুলিয়ে দেবে। একসময় পাহাড়ের উপর থেকে সমুদ্র দেখা যেত, নগরায়নের ফলে এখন সেটি আর দেখা যায় না।

মন্তব্য করুন

comments