৫৪ দেশের জন্য সীমান্ত খুলছে ইইউ, তালিকায় নেই বাংলাদেশ

করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসায় ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলো তাদের সীমানা খুলে দিচ্ছে। এর ফলে চালু হতে যাচ্ছে মহাদেশটির শেনজেন এলাকার দেশগুলোতে বিমান চলাচল।

চীন, ভুটান, ভারত, মিয়ানমারসহ বিশ্বের ৫৪টি দেশের নাগরিকরা ইইউর শেনজেন জোনে প্রবেশ করতে পারবেন। তবে শেনজেনভুক্ত দেশের ভিসা তালিকায় নেই বাংলাদেশ।

জুলাইয়ের শুরুতে ইইউ দেশগুলোর সীমানা উন্মুক্ত হচ্ছে। এরই প্রেক্ষিতে ইউরোপের শেনজেনভুক্ত দেশগুলো ৫৪টি দেশের নাম প্রকাশ করেছে যারা ভিসা পাবে।

ইইউর ২২ দেশ এবং এর বাইরের চারটি দেশ নিয়ে শেনজেন জোন গঠিত। ইইউর পাসপোর্ট ফ্রি জোন হিসেবে পরিচিত শেনজেন। এই এলাকার যেকোনও দেশের নাগরিক শেনজেনভুক্ত যেকোনও সদস্য দেশ সফর করতে পারেন। শেনজেন এলাকায় কোনও সীমান্ত নিয়ন্ত্রণ নেই।

মানুষের যাতায়াত সহজ করার লক্ষ্যে ইউরোপীয় দেশগুলোকে একীভূত করে এই শেনজেন অঞ্চলের সৃষ্টি হয়। ১৯৮৫ সালে লুক্সেমবার্গের শেনজেন শহরে একটি চুক্তি সাক্ষর করে কয়েকটি ইউরোপীয় দেশ। বলা যায় সেই চুক্তির ধারাবাহিকতাতেই সৃষ্টি হয়েছে শেনজেন এলাকা এবং শেনজেন ভিসা। 

তালিকাটিতে বাংলাদেশের মতো নাই পাকিস্তান ও নেপালের নামও। মহামারী পরিস্থিতি এবং প্রত্যেক দেশে করোনাভাইরাস নিয়ে তাদের ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে এই তালিকা হালনাগাদ করা হবে বলে জানান ইইউ কর্মকর্তারা।

ফলে ভিসা তালিকায় থাকা ৫৪টি দেশের বাইরের নাগরিকেরা শেনজেনভুক্ত এসব দেশে ভ্রমণ করতে পারবেন না।

মন্তব্য করুন

comments