প্রথম বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান হিসেবে ডলবি’র স্বীকৃতি পেলো ওয়ালটন

ডলবি’র ‘লাইসেন্সড ম্যানুফ্যাকাচারার’ হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হলো দেশের শীর্ষ ইলেকট্রনিক্স ও প্রযুক্তিপণ্য প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন। প্রথম ও একমাত্র বাংলাদেশি টিভি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে এ গৌরব অর্জন করল ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। ফলে ওয়ালটন এখন বাংলাদেশে ডলবি’র অফিশিয়াল সাউন্ড কোয়ালিটির টিভি তৈরিতে পার্টনার হলো। এতে বাংলাদেশে তৈরি বিশ্বমানের ওয়ালটন টেলিভিশন বহির্বিশ্বে আরও বেশি গ্রহণযোগ্যতা পাবে।

ডলবি ল্যাবরেটরিস আমেরিকাভিত্তিক একটি বিশ্বখ্যাত কোম্পানি। যারা শব্দ বা অডিওর বিভিন্ন প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করে। ডলবি প্রযুক্তির বিশেষত্ব হচ্ছে অডিওর নয়েজ কমানো এবং অডিও কোয়ালিটি বাড়ানো। সাউন্ড সিস্টেমের জগতে সারা বিশ্বে ডলবি অপ্রতিদ্বন্দ্বী। ডলবি শুধুমাত্র লাইসেন্সধারী উৎপাদনকারীদের তার প্রযুক্তিগুলো ব্যবহারের অনুমতি দেয়।

জানা গেছে, গত জানুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রের সান ফ্রান্সিসকোয় ডলবি’র প্রধান কার্যালয়ে প্রতিষ্ঠানটির ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করেন ওয়ালটন টেলিভিশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্রকৌশলী মোস্তফা নাহিদ হোসেন। ওই বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন ডলবি ল্যাবরেটরিসের সিনিয়র ডিরেক্টর ভিভিয়ান ই ভাসাল্লো। এরই ফলশ্রুতিতে সম্প্রতি ডলবি’র লাইসেন্সড ম্যানুফ্যাকাচারার হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করে ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। এরইমধ্যে ডলবি তার নিজস্ব ওয়েবসাইটে () লাইসেন্সড ডলবি ম্যানুফ্যাকচারার তালিকায় ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজের নাম অন্তর্ভুক্ত করেছে।

এ প্রসঙ্গে মোস্তফা নাহিদ হোসেন বলেন, ‘ডলবি হলো শব্দ বা অডিও’র সর্বাধুনিক প্রযুক্তি। কোনো প্রতিষ্ঠানকে লাইসেন্স দেওয়া এবং পার্টনার করে নেওয়ার ক্ষেত্রে ডলবি বেশ কিছু বিষয় বিবেচনা করে। এর মধ্যে রয়েছে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি সমৃদ্ধ সুসজ্জিত গবেষণা ও উন্নয়ন (আরএন্ডডি) সেন্টার, আন্তর্জাতিক মান অনুযায়ী টিভি উৎপাদন, রপ্তানি বাজারে চাহিদা, স্থানীয় বাজারে উল্লেখযোগ্য মার্কেট শেয়ার ইত্যাদি। যেসব টিভি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান এসব শর্ত পূরণ করতে সমর্থ হয়, তাদেরকেই ডলবি ‘লাইসেন্সড ম্যানুফ্যাকাচারার’ হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করে।’

মন্তব্য করুন

comments