পাহাড়তলীতে বন্দুকযুদ্ধে ৭ মামলার আসামি নিহত

নগরীর পাহাড়তলী থানার দক্ষিণ কাট্টলী বারুণীঘাট এলাকায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে হত্যা, হত্যাচেষ্টা ও ছিনতাইসহ সাতটি মামলার আসামি মো. রাসেল (২৭) নিহত হয়েছেন। 

মঙ্গলবার (২৩ জুন) দিবাগত রাতে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। গোলাগুলির ঘটনায়  পাহাড়তলী থানার চার পুলিশ সদস্যও আহত হন। নিহত মো. রাসেল নগরীর গ্রিনভিউ আবাসিক এলাকার তিন নম্বর সড়কের জনৈক শামসুল হকের দত্তক নেওয়া সন্তান বলে জানা যায়।

পাহাড়তলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঈনুর রহমান বলেন, গত মঙ্গলবার রাত দেড়টার দিকে রাসেলসহ সন্ত্রাসীদের একটি দল বারুণীঘাট এলাকায় অবস্থান করছিল। খবর পেয়ে পুলিশ তাদের আটক করতে গেলে সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। পুলিশও পাল্টা গুলিবর্ষণ করে।  উভয়পক্ষে প্রায় ২০ মিনিট গোলাগুলির পর সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। ঘটনাস্থল থেকে রাসেলের মৃতদেহ ও অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ। গোলাগুলিতে পাহাড়তলী থানার চার পুলিশ সদস্যও আহত হন। 

পুলিশ সূত্র জানিয়েছে, রাসেল নগরের পাহাড়তলী, হালিশহর ও ডবলমুরিং এলাকার দুর্ধর্ষ ছিনতাইকারী ও সন্ত্রাসী। সুঠামদেহী হওয়ায় তাকে এলাকায় সবাই ভয় করতো। কথায় কথায় গুলি করে ভীতি তৈরি করেন রাসেল।

বছরখানেক আগে সবুজবাগ আবাসিক এলাকায় বিরোধের জেরে এক ব্যক্তিকে গুলি করেন রাসেল। ফুসফুসে আঘাত পাওয়া ওই ব্যক্তি এখনও মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন। ছিনতাই, সন্ত্রাসী ও খুনের চেষ্টার মতো অপরাধের সঙ্গে রাসেল জড়িত ছিলেন বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা।

মন্তব্য করুন

comments