ঢাকা শহরে ৪৫ এলাকা ‘রেড জোন’

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের একাধিক ওয়ার্ড এবং তিন জেলার বিভিন্ন এলাকাকে রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। করোনা প্রতিরোধে গঠিত ন্যাশনাল টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজরি কমিটির গতকাল শনিবারের সভায় এসব এলাকাকে চিহ্নিত করা হয়।

ঢাকায় করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষায় লাখপ্রতি ৬৫ জনের মধ্যে কোভিড-১৯ শনাক্ত হলে, সেই এলাকাকে রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত করার পরামর্শ দিয়েছে ন্যাশনাল টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজরি কমিটি।

এরই অংশ হিসেবে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৪৫ এলাকা করোনাভাইরাসের জন্য অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ বা রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এরমধ্যে উত্তর সিটির ১৭ এলাকা হলো: গুলশান, বাড্ডা, ক্যান্টনমেন্ট, মহাখালী, তেজগাঁও, রামপুরা, আফতাবনগর, মোহাম্মদপুর, কল্যাণপুর, গুলশান, মগবাজার, এয়ারপোর্ট, বনশ্রী, রাজাবাজার, উত্তরা ও মিরপুর।

দক্ষিণ সিটির ২৮টি এলাকার মধ্যে আছে: যাত্রাবাড়ী, ডেমরা, মুগদা, গেন্ডারিয়া, ধানমন্ডি, জিগাতলা, লালবাগ, আজিমপুর, বাসাবো, শান্তিনগর, পল্টন, কলাবাগান, রমনা, সূত্রাপুর, মালিবাগ, কোতোয়ালি, টিকাটুলি, মিটফোর্ড, শাহজাহানপুর, মতিঝিল, ওয়ারী, খিলগাঁও, পরিবাগ, কদমতলী, সিদ্ধেশ্বরী, লক্ষ্মীবাজার, এলিফ্যান্ট রোড ও সেগুনবাগিচা।

এর আগে রোববার (১৪ জুন) দুপুরে ঢাকাসহ দেশের অনেক স্থানে রেড জোন ঘোষণা করে লকডাউন করা হবে বলে জানিয়েছেন জন প্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। এ বিষয়ে আজই (১৪ জুন) প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে বলেও নিশ্চিত করেন তিনি। তিনি জানান, আগামীকাল থেকে এসব বাস্তবায়ন হবে।

তিনি আরো জানান, সারাদেশকে মূলত তিনটি প্রধান জোনে ভাগ করা হবে। শুধু লকডাউন এলাকায় সাধারণ ছুটি থাকবে। 

মন্তব্য করুন

comments