করোনামুক্ত হলেন চট্টগ্রামে প্রথম প্লাজমা নেওয়া ডা. সমিরুল

চট্টগ্রামে প্রথম করোনামুক্ত পুলিশ সদস্যের প্লাজমা নিয়ে করোনামুক্ত হয়েছেন চট্টগ্রাম মেডিক‌্যাল কলেজের (চমেক) সহযোগী অধ্যাপক ডা. সমিরুল ইসলাম বাবু।

রোববার (৩১ মে) গভীর রাতে চট্টগ্রাম সিভিল সার্জনের দপ্তর থেকে ডা. সমিরুল ইসলাম বাবুর নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে করোনা নেগেটিভ ফলাফল আসে বলে জানানো হয়।

তবে এখনো তাকে হাসপাতাল থেকে রিলিজ করা হয়নি। তিনি চট্টগ্রাম মেডিক‌্যাল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক অনিরুদ্ধ ঘোষের নেতৃত্বে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

চমেক হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা. অনিরুদ্ধ ঘোষ বলেন, ‘ডা. সামিরুলের অবস্থা আগের চেয়ে ভালো। তবে করোনার কারণে ফুসফুসের যে ক্ষতি হয়েছে তা থেকে সুস্থ হতে একটু সময় লাগবে। চিকিৎসা দেওয়ার পর প্রথমবার নমুনা পরীক্ষায় করা হয়। এতে নেগেটিভ ফলাফল আসে।’

ডা. সামিরুল প্লাজমা থেরাপিতে চট্টগ্রামে প্রথম করোনামুক্ত রোগী। তাকে প্লাজমা দিয়েছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের পুলিশ কনস্টেবল অরুণ চাকমা। এই অরুণ চাকমা চট্টগ্রাম নগর পুলিশের করোনা আক্রান্তদের মধ্যে প্রথম সুস্থ হওয়া ব্যক্তি।

প্রসঙ্গত, গত ২৬ মে রক্তের প্লাজমা দেওয়া হয় চমেক হাসপাতালের এই চিকিৎসককে। করোনা থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরা মো. তারেক নামে এক ব্যক্তি এবং পুলিশ কনস্টেবল অরুন চাকমা প্লাজমা দেন। এর আগে ডা. সামিরুল ইসলাম করোনা আক্রান্ত হয়ে ১১ দিন বাসায় চিকিৎসা নেন। গত ২১ মে তাকে চমেক হাসপতালের একটি কেবিনে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

সর্বশেষ ৩০ মে তার করোনার নমুনা পুনরায় পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হলে রোববার রাতে সেই নমুনার নেগেটিভ ফলাফল আসে।

মন্তব্য করুন

comments