টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই রোহিঙ্গা মাদক কারবারি নিহত

টেকনাফে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে দুই রোহিঙ্গা নিহত হয়েছে। তারা হলো, উখিয়া বালুখালী এইচ ব্লকের ফেরদৌস (৩০), একই ক্যাম্পের বাসিন্দা আবদুস সালাম (৩৫)। এ ঘটনায়  বিজিবির তিন সদস্য আহত হন। 

শনিবার (২৫ জুলাই) ভোর রাতে টেকনাফের মৌচনি ছুরিখ্যাল নামক এলাকায় সংলগ্ন সীমান্তে এ ঘটনা ঘটে।

বিজিবি বলছে, নিহত ব্যক্তিরা মিয়ানমার থেকে মাদকের চালান নিয়ে নাফ নদী সাঁতরে অনুপ্রবেশের সময় গুলিবিনিময়ে তাদের মৃত্যু হয়। ঘটনাস্থল থেকে ২ লাখ ১০ হাজার ইয়াবা, একটি দেশীয় অস্ত্রসহ ধারালো কিরিচ উদ্ধার করা হয়। 

টেকনাফ-২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান জানান, শনিবার ভোর রাতে টেকনাফের মৌচনি ছুরিখ্যাল নামক এলাকায় সংলগ্ন নাফ নদী সীমান্তে মিয়ানমার থেকে একটি  মাদকের চালান আসার গোপন সংবাদ পায়। এর ভিত্তিতে বিজিবি একটি দল সেখানে অবস্থান নেন। এসময় কয়েকজন লোক নাফ নদ সাঁতরে কিনায়  আসতে দেখে চ্যালেঞ্জ করলে মাদককারবারি চক্রের সদস্যরা বিজিবিকে লক্ষ্য করে গুলি করে। এতে বিজিবির দুই সদস্য আহত হন।

তিনি আরও জানান, এসময় বিজিবিও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলিবর্ষণ করলে মাদককারবারি চক্রের সদস্য কেওরা বাগানের দিকে পালিয়ে যায়। এসময় উভয়পক্ষে ৪-৫ মিনিট গুলিবিনিময় হয়। পরে ঘটনাস্থল তল্লাশি চালিয়ে ২ লাখ ১০ হাজার ইয়াবা, একটি দেশীয় অস্ত্র, এক রাউন্ড কার্তুজ ও একটি ধারালো কিরিচ উদ্ধার করা হয়। এ সময় গুলিবিদ্ধদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য টেকনাফ উপজেলা সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। সেখানে নেওয়ার পর তাদের মৃত্যু হয়।

বিজিবির অধিনায়ক বলেন, মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। 

মন্তব্য করুন

comments