করোনা চিকিৎসাঃ চট্টগ্রামে যুক্ত হচ্ছে আরও ৩ হাসপাতাল

ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জের পর বন্দরনগরী চট্টগ্রাম বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের হটস্পটে পরিণত হয়েছে। প্রতিদিনই দেড়শ থেকে দু’শ করোনা রোগী শনাক্ত হচ্ছে নগরীতে। অব্যাহত করোনা রোগী বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে গতকাল ইম্পেরিরিয়াল হাসপাতালসহ নতুন ২টি হাসপাতালকে করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল হিসেবে ঘোষণা করেছে সরকার।

করোনা চিকিৎসা সুবিধা দ্রুত সম্প্রসারণের উদ্দেশ্যে আগামী দুয়েক দিনের মধ্যে আরও তিনটি হাসপাতাল অধিগ্রহণ করে করোনা রোগীদের সেবা প্রদানের ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

বুধবার (২৭ মে) চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে করোনা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ ও মোকাবিলা সম্পর্কিত চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন আয়োজিত সভায় সভাপতির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, সভায় কমিটি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে, আজকে হলি ক্রিসেন্ট হাসপাতাল অধিগ্রহণ করা হবে। এছাড়া সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় নগরের আগ্রাবাদ এক্সেস রোডের সিটি হল কনভেনশন সেন্টারকে ৩০০ শয্যার আইসোলেশন সেন্টার হিসেবে গড়ে তোলা হচ্ছে। আগামী দুইদিনের মধ্যে ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল, বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতাল ও রেলওয়ে হাসপাতাল অধিগ্রহণ করা হবে। রেলওয়ে হাসপাতাল পুরোপুরি প্রস্তুত, সব দিক থেকে। রেলওয়ের প্রতিনিধি জানিয়েছেন, এখনই রোগী ভর্তি করা সম্ভব।

এছাড়া করোনাভাইরাসে শনাক্তের নমুনা সংগ্রহ করার জন্য চট্টগ্রামে আরও ১১টি বুথ বসানো হবে বলেও জানান তিনি। এরপরও আইসোলেশন সেন্টারের প্রয়োজন পড়লে চট্টগ্রামের নগরে যেসব শীততাপ নিয়ন্ত্রিত কমিউনিটি সেন্টার রয়েছে সেগুলো আমরা আইসোলেশন সেন্টারে রূপান্তর করবো। পরবর্তীতে আরও হাসপাতাল প্রয়োজন হলে সরকার সেগুলো অধিগ্রহণ করবে। এসব ক্ষেত্রে সেনাবাহিনী সর্বোতভাবে সহায়তা করবে।

উল্লেখ্য, এতোদিন চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল এবং ফিল্ড হাসপাতাল করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল হিসেবে রোগী ভর্তি করছিলো।

মন্তব্য করুন

comments