চট্টগ্রামে করোনা চিকিৎসায় ইম্পেরিয়াল ও ইউএসটিসি হাসপাতাল ব্যবহারের ঘোষণা

অবশেষে চট্টগ্রাম নগরের ফয়’স লেক এলাকায় অবস্থিত ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ও বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতালকে ডেডিকেটেড কোভিড-১৯ হাসপাতাল হিসেবে ঘোষণা করেছে সরকার।

মঙ্গলবার (২৬ মে) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ অনুমতি দেওয়া হয়। ঐ চিঠিতে এই দুটি হাসপাতালকে ডেডিকেটেড কোভিড ১৯ হাসপাতাল ঘোষণা করে রোগী ভর্তির প্রয়োজনীয় নির্দেশ দেওয়া হয়।

নির্দেশনায় বলা হয়, বর্তমান বৈশ্বিক পরিস্থিতিতে সমগ্র বাংলাদেশের ন্যায় চট্টগ্রাম বিভাগে (বিশেষত চট্টগ্রাম জেলায়) কোভিড ১৯ ব্যাপকহারে ছড়িয়ে পড়েছে। এই জেলায় প্রতিদিন কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগী আশঙ্কাজনকভাবে বেড়ে চলেছে। যার ফলশ্রুতিতে কোভিড ডেডিকেটেড সরকারি স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানসমূহে রোগী সংকুলান করা সম্ভব হচ্ছে না।

তাই কোভিড ১৯ আক্রান্ত রোগীদের সুচিকিৎসা নিশ্চিতকল্পে চট্টগ্রাম বিভাগীয় শহরের বেসরকারি স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানসমূহকেও বিশেষায়িত হাসপাতালে রূপান্তর করা আবশ্যক হয়ে পড়েছে। সেই লক্ষ্যে জনস্বার্থে সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮ এর ধারা ৫ (১) (ক) ও (গ) মোতাবেক চট্টগ্রাম মহানগরীর খুলশী এলাকায় ‘ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল’ এবং পাহাড়তলী এলাকার ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি (ইউএসটিসি) এর অধীনে পরিচালিত বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতালকে  (বিবিএমএইচ)  বিশেষায়িত হাসপাতাল ঘোষণা করে রোগী ভর্তির প্রয়োজনীয় নির্দেশ প্রধান করা হলো।

এর আগে চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক, সেনাবাহিনী কর্মকর্তা, গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তাসহ সরকারের রাষ্ট্রের দায়িত্বশীলরা ইম্পেরিয়াল হাসপাতালকে দেশের এই করোনা-সঙ্কটে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে ব্যর্থ হন। ইম্পেরিয়াল কর্তৃপক্ষ নানা অজুহাতে তাদের প্রস্তাব এড়িয়ে যায়।

মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রোগীর সংখ্যা যখন চট্টগ্রামে হু হু করে বাড়ছিল, তখনই চট্টগ্রামে করোনা রোগীদের চিকিৎসায় এই ২টি হাসপাতালকে বিশেষায়িত কভিড হাসপাতাল হিসেবে ঘোষণা করল সরকার।

মন্তব্য করুন

comments