ইতালি থেকে ফেরত ১৪৭ প্রবাসী বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে

ইতালিতে ঢুকতে না পেরে ফেরত আসা ১৪৭ বাংলাদেশিকে বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখার নির্দেশ দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বৃহস্পতিবার রাতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষাসেবা বিভাগের যুগ্ম সচিব মো. যাহিদ হোসেন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এর আগে ইতালিতে যাওয়া ১৪৭ প্রবাসী বাংলাদেশিকে বিমানবন্দরে নামতে না দিয়ে দেশে ফেরত পাঠিয়েছে দেশটির সরকার। গতকাল রাত আড়াইটার দিকে কাতার এয়ারওয়েজের ফ্লাইটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান তারা।

এরপরই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী সবাইকে আশকোনা হজ্বক্যাম্পে বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়েছে।

তবে, প্রাথমিক পরীক্ষায় কারো শরীরে করোনার উপসর্গ পাওয়া যায়নি বলে জানান আশকোনা হজ ক্যাম্পের ইনচার্জ মেজর মোস্তফা কামাল। বলেন, সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী নারী-পুরুষদের আলাদা আলাদা রাখা হবে। বিদেশের আদলেই কোয়ারেন্টাইনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বুধবার ইতালির রোমের ফিউমিসিনো ও মিলানের মালপেনসা বিমানবন্দরে দুটি ভিন্ন ফ্লাইটে অবতরণ করা বাংলাদেশি নাগরিকদের নামতে দেয়নি ইতালি। পরে তাদের ফেরত পাঠানো হয়। এরআগে, একটি ফ্লাইটে দুই ডজনের বেশি বাংলাদেশি আরোহীর শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর আগামী ৫ অক্টোবর পর্যন্ত বাংলাদেশের সঙ্গে বিমান চলাচল বন্ধ করে দেয় ইতালি।

দু-একজন প্রবাসীর দায়িত্বজ্ঞানহীন আচরণের জন্য এই পরিণতি বলে মনে করছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের নীতিনির্ধারকরা বলছেন, সেখানে গিয়ে কোয়ারেন্টাইন অমান্য করে কাজে যোগ দিয়ে অন্যদের সংক্রমিতও করেছেন তারা। তাদের এমন আচরণের বিব্রত বাংলাদেশও। পরে, ইতালির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করে কিছু বাংলাদেশির এমন আচরণকে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখারও অনুরোধ জানিয়েছে সরকার।

মন্তব্য করুন

comments

আগের সংবাদফেনীতে গৃহকর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগে সৌদিপ্রবাসী গ্রেপ্তার
পরের সংবাদকরোনাভাইরাসঃ যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে আক্রান্তের সর্বোচ্চ রেকর্ড