আউটসোর্সিংয়ে বাংলাদেশ ২য়; ১ নম্বরে ভারত

53
শেয়ার
ছবিঃ সংগৃহিত

বিশ্বে আউটসোর্সিং করা দেশগুলোর মধ্যে ১ম ভারতের পরেই জায়গা করে নিয়েছে বাংলাদেশ। আর তিন নম্বরে অবস্থান করছে আমেরিকা।

সম্প্রতি অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘অক্সফোর্ড ইন্টারনেট ইনস্টিটিউট (ওআইআই)’-এর একটি গবেষণায় প্রকাশিত প্রতিবেদনে এ তথ্য জা্না গেছে। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফ্রিল্যান্স কাজ করার একটা বড় বাজার তৈরি হয়েছে বিশ্ব জুড়ে। প্রতিদিনই এই বাজার দ্রুত বাড়ছে।

বিশ্বের মোট আউটসোর্সিং কাজের ২৪ শতাংশ কাজ হয়ে থাকে ভারতে। আর দ্বিতীয় স্থানে থাকা বাংলাদেশে হয়ে থাকে ১৬ শতাংশ কাজ। আর তৃতীয় অবস্থানে থাকা আমেরিকায় হয় ১২ শতাংশ কাজ। এর পরপরই সেরা দশে অবস্থান করছে পাকিস্তান, ফিলিপাইন, যুক্তরাজ্য, ইউক্রেইন, কানাডা, রোমানিয়া ও মিশর।

আউটসোর্সিং কাজে বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানে বেশী কাজ হচ্ছে সফটওয়্যার উন্নয়ন, ক্রিয়েটিভ, মাল্টিমিডিয়া ও ডাটা এন্ট্রি নিয়ে। আর আমেরিকায় প্রফেশনাল সার্ভিস যেমন কপি রাইটিং (লিখন) ও ট্রান্সলেশন (অনুবাদ) ও কাজ হচ্ছে বেশী। অনলাইনে ফ্রিল্যান্স কাজের চারটি বড় মার্কেটপ্লেস ‘ফাইবার’, ‘ফ্রিল্যান্সার’, ‘গুরু’ ও ‘পিপলপারআওয়ার’ থেকে এসব তথ্য। প্রতিবেদনটি ১ থেকে ৬ জুলাই পর্যন্ত অনলাইন লেবার ইনডেক্স টপ অকুপেশন এর ভিত্তিতে প্রণয়ন করা হয়।

এ প্রসঙ্গে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ বলেছেন, ‘‘ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণের লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছে বর্তমান সরকার। দেওয়া হচ্ছে বিশ্ব মানের প্রশিক্ষণ। যাতে তরুণ প্রজন্ম দ্রুত নতুন প্রযুক্তির সঙ্গে পরিচিত ও তাতে পারদর্শী হয়ে উঠতে পারে।’’

বর্তমানে অনেকে আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে আয় করে সাবলম্বী হওয়ায় শহর ছাড়িয়ে প্রান্তিক পর্যায়েও তরুণদের ঝোঁক বাড়ছে এ পেশায়। অনলাইনে কাজ করে আয় করার পদ্ধতিকে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বলা হয় আউটসোর্সিং।

মন্তব্য করুন

comments