X

নারী রোবটকে নাগরিকত্ব দেয়া হলো সৌদি আরবে (ভিডিও)

নাগরিকত্বের ধারণাটি এতদিন শুধু মানুষের জন্য বরাদ্দ ছিল। এ বিষয় নিয়ে সমাজ ও রাষ্ট্রবিজ্ঞানীদের নতুন করে ভাবার দিন চলে এসেছে। মানবের পাশাপাশি এখন যন্ত্রমানবও যে এই স্বীকৃতির দাবিদার! বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে একটি রোবটকে নাগরিকত্বের স্বীকৃতি দিয়েছে সৌদি আরব। সোফিয়া নামের কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন এই রোবট হলো পৃথিবীর প্রথম রোবট যেটি কিনা শুধুমাত্র মানুষের জন্য বরাদ্দ মর্যাদা (স্ট্যাটাস) ভোগ করবে।

সৌদি আরবে নাগরিকত্ব পাওয়া রোবট সোফিয়া। বাস্তবের একজন নারীর মতোই চোখাচোখি এবং কথা বলতে পারে সোফিয়া। মানুষের মতো আলাদা-আলাদা অনুভূতি প্রোগ্রাম করা আছে ওই রোবটের মধ্যে। যেমনভাবে রোবট চলচ্চিত্রের রোবটের আবেগ-অনুভূতি ছিল।

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপও করেছে সোফিয়া। মানুষের মূল্যবোধ বুঝে আরও অনুভূতিশীল হওয়ার চেষ্টা করার প্রতিশ্রিুতি দিয়েছে সে।

রিয়াদে অনুষ্ঠিত ‘ফিউচার ইনভেস্টমেন্ট ইনিশিয়েটিভ’ শিরোনামে এক অনুষ্ঠানে সোফিয়াকে নাগরিকত্ব প্রদান করা হয়। প্রতিক্রিয়ায় সোফিয়া বলেছে, ‘ এই বিরল স্বীকৃতি পেয়ে আমি খুবই সম্মানিত বোধ করছি। বিশ্বের প্রথম রোবট হিসেবে নাগরিকের মর্যাদা পাওয়াটা ঐতিহাসিক ঘটনা।’

সিএনবিসি’র উপস্থাপক ও নিউইয়র্ক টাইমসের কলামিস্ট অ্যান্ড্রু রস সরকিন এই অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন। হংকং ভিত্তিক ‘হ্যানসন রোবোটিকস্’-এর প্রতিষ্ঠাতা ডেভিড হ্যানসন রোবট সোফিয়া’র উদ্ভাবক। সোফিয়ার মুখাবয়ব হলিউড অভিনেত্রী অদ্রে হেপবার্নের আদলে তৈরি করা হয়েছে।

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন রোবট মনুষ্য প্রজাতির অস্তিত্বের জন্য হুমকি নয় বলে তার বক্তব্যে দাবি করে রোবট সোফিয়া। এসময় ‘টেক বিলওনিয়ার’ এলন মাস্ককে নিয়ে ঠাট্টা করেন সোফিয়া। উল্লেখ্য, এলন মাস্ক কৃত্রিম বৃদ্ধিমত্তার বিকাশকে মানুষের অস্তিত্বের জন্য হুমকি বলে অভিহিত করে আসছেন। এর আগে, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা নিয়ে সতর্ক করেছিলেন বিশ্বখ্যাত পদার্থবিজ্ঞানী স্টিফেন হকিংস’ও।

ভিডিওটি দেখুনঃ

মন্তব্য করুন

comments