প্রথম বারের মতো বিশ্বকাপের চূড়ান্ত আসরে আইসল্যান্ড

28
শেয়ার

প্রথম বারের মতো বিশ্বকাপ ফুটবলে জায়গা করে নিল আইসল্যান্ড। সোমবার কোসোভোকে ২-০ গোলে হারিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকেট কেটেছে তারা। ২০১৬ ইউরোতে ইংল্যান্ডের বিদায় ঘন্টা বাজিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে চকম দিয়েছিল আইসল্যান্ড। একই দিন জর্জিয়াকে ১-০ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপের টিকিট পেয়েছে সার্বিয়া।

নিজেদের ঘরে বিশ্বকাপের টিকিট পাওয়ার দারুণ সম্ভাবনা নিয়েই মাঠে নেমেছিল আইসল্যান্ড। জয় পেলেই নিশ্চিত হয়ে যেত তাদের ফুটবলের সবচেয়ে বড় মঞ্চে খেলা। হলোও তাই। আইসল্যান্ড পৃথিবীর সবচেয়ে ক্ষুদ্রতম দেশ হিসেবে নাম লেখালো বিশ্বকাপে। যাদের জনসংখ্যা ৩ লক্ষ ৩৫ হাজার। এর আগে ক্ষুদ্রতম দেশ হিসেবে বিশ্বকাপে খেলার রেকর্ডটি ছিল ত্রিনেদাদ অ্যান্ড টোবাকোর। আইসল্যান্ডের এমন ইতিহাস গড়ার দিনে গোল দুটি করেছেন গিলফি সিগার্ডসন ও জোহান গুডমান্ডসন।

আইসল্যান্ডের সমর্থকদের আবারও তোপ দাগার মতো তালি বাজানোর উপলক্ষ এনে দিলেন গিলফি সিগুর্ডসন। নরডিক দেশটির ফুটবল-রূপকথা এবার পৌঁছেছে বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে। গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে ২-০ গোলে কসোভোকে হারিয়ে রাশিয়ার টিকিট কেটেছে ভাইকিংসরা। ম্যাচে শেষ গোটা আইসল্যান্ডই যেন পরিণত হয় উৎসবের মঞ্চে। সেটি হওয়াটাই স্বাভাবিক। বিশ্বকাপের ইতিহাসে ক্ষুদ্রতম দেশ হিসেবে চূড়ান্ত পর্বের টিকিট যে নিশ্চিত করেছে তারা। এর আগে এই রেকর্ডের অধিকারী ছিল ত্রিনিদাদ ও টোবাগো।

বিশ্বকাপ কোয়ালিফাইংয়ে ইউরোপ অঞ্চল থেকে নয় গ্রুপ সেরা দল খেলবে সরাসরি বিশ্বকাপে। সেরা আট রানার্সআপদের নিয়ে প্লেফ শেষে চারটি দল পাবে বিশ্বকাপের টিকিট।

মন্তব্য করুন

comments