X

বড় ধরনের দুর্ঘটনার হাত থেকে বেঁচে গেলেন তামিম

টাইগারদের ওপেনার তামিম ইকবাল বড় ধরনের দুর্ঘটনার হাত থেকে বেঁচে গেছেন। দরজার কাচ ভেঙে তামিমের পেটে প্রবেশ করেছিল। এজন্য দিতে হয়েছে ৪টি সেলাই।

ব্যাটিংটা ভালোই করছিলেন। কিন্তু ২৯ রান করে রানআউট হয়ে গেলে কার ভালো লাগে! ড্রেসিংরুমের সামনের বারান্দায় ওঠার সময় সেই হতাশা থেকেই তামিম ইকবাল ব্যাট দিয়ে বাড়ি দিলেন দরজার কাচে। কাচটা সামান্য ভাঙল। এরপর ড্রেসিংরুমে ঢোকার সময় যেটা ঘটল, তাতে অনেক বড় দুর্ঘটনায় পড়তে পারতেন তামিম।

তবে যা হয়েছে, সেটাও কম নয়। কাল চট্টগ্রাম থেকে দলের সঙ্গে তিনি ঢাকায় ফিরেছেন পেটে চারটি সেলাই নিয়ে। তবে বর্তমানে তিনি আশঙ্কামুক্ত রয়েছেন। ঘটনাটি ঘটে গত বুধবার। তবে বিষয়টি এতদিন প্রকাশ্যে আসেনি।

অস্ট্রেলিয়া সিরিজকে সামনে রেখে চট্টগ্রামে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রস্তুতি ম্যাচে মাঠে নেমেছিলেন তামিম-মুশফিকরা। দেখেশুনেই খেলছিলেন এ বামহাতি ওপেনার। তবে ব্যক্তিগত ২৯ রানে এসে দুর্ভাগ্যজনক রানআউটের শিকার হন।

এতে নিজের ওপরই নাখোশ ছিলেন তামিম। মাঠ থেকে বেরিয়ে ড্রেসিংরুমের সামনের বারান্দায় ওঠার সময় নিজের ব্যাট দিয়ে বাড়ি দেন দরজার কাচে। কাচটা সামান্য ভাঙল। এরপর ড্রেসিংরুমে ঢোকার সময় কাচের দরজায় হাত দিয়ে ধাক্কা দিতেই সেটি ঝনঝন করে ভেঙে পড়ে।

তামিমও পড়ে যান সেই কাচের ওপরই। মাথায় হেলমেট আর পায়ে প্যাড না থাকলে হয়তো আরও ভয়ংকর কিছু হতে পারতো। তবে ঘটনার সময় কিছু ভাঙা কাচের টুকরো পেটে ঢুকে যায়। এসময় বেশ কিছুক্ষণ তার শরীর থেকে রক্তক্ষরণ হয়। সাংবাদিকদের কাছে নিজেই এই ঘটনার বর্ণনা দিয়েছেন তামিম। তামিম অবশ্য বলেছেন, দুর্ঘটনা ঘটার পর অন্তত পাঁচ দিন তিনি কিছু করতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা।

জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আয়োজিত প্রস্তুতি ম্যাচের পরের দুই দিন বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার মাঠে নামেননি তামিম। গতকাল শনিবার দলের সঙ্গে ঢাকায় ফিরেছেন। ঢাকাতেও প্রস্তুতি ম্যাচ ও অনুশীলন করবেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। সেলাই কাটার পর অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে তামিমের মাঠে ফেরার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে জানা গেছে।

মন্তব্য করুন

comments