ছেলের প্রশ্নের উত্তর খুঁজছেন ইউএনও সালমন

49
শেয়ার

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণপত্রে পঞ্চম শ্রেণির এক শিশুর আঁকা বঙ্গবন্ধুর ছবি ছেপে অবমাননার অভিযোগে মানহানির মামলা খাওয়া সারাদেশের আলোচিত বরগুনার ইউএনও তারিক সালমন তার ছেলের প্রশ্নের উত্তর খুঁজছেন। তার পাঁচ বছরের একমাত্র পুত্রসন্তান ঈশানের প্রশ্ন তা মা তনুকে, ‘আমার বাবাকে পুলিশ ধরে নিয়ে যাচ্ছে কেন? বাবা কি দুষ্টু?’

কয়েকদিন আগে টিভি পর্দায় বাবাকে পুলিশ ধরে নিয়ে যাচ্ছে দেখে তার মনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

আজ সোমবার (২৪ই জুলাই) তার ফেসবুকে তিনি এক ষ্ট্যাটাস দেন, সেখানে তিনি এ কথা বলেন। ষ্ট্যাটাসটির শিরোনাম দেন তিনি,

“যে প্রশ্নের উত্তর পায়নি ঈশান”

পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধরা হলো ষ্ট্যাটাসটি।

“ওর নাম রেখেছি ‘তরুণ ঈশান’। নজরুলের কবিতা থেকে। আমার একমাত্র সন্তান। বয়স পাঁচ ছুঁই-ছুঁই। সে একটা প্রশ্ন করেছে তার মাকে। সেই প্রশ্নের উত্তর এখনো পায়নি সে। টিভিপর্দায় সে দেখেছে যে তার বাবাকে পুলিশ ধরে নিয়ে যাচ্ছে। সে জানে, পুলিশ দুষ্টু লোকদেরই ধরে শুধু (কারণ সে মাঝেমধ্যে ‘ক্রাইম পেট্রল’ দেখে সনি আট চ্যানেলে)।

ঈশান জিজ্ঞাসা করেছে তার মাকে, “আমার বাবাকে পুলিশ ধরে নিয়ে যাচ্ছে কেন? বাবা কি দুষ্টু?”। তনু, আমার স্ত্রী, এই প্রশ্নটির জবাব দিতে পারেনি তার ছেলেকে এখনো।

এই প্রশ্নের উত্তরটি আমরা খুঁজছি।”

 

তার বিরুদ্ধে এই মানহানির মামলা দায়ের করেন বরিশালের আইনজীবী সমিতির সভাপতি ওবায়েদ উল্লাহ সাজু। বাদী হয়ে গত ৭ জুন তৎকালীন আগৈলঝাড়ার ইউএনও এবং বর্তমানে বরগুনার ইউএনও গাজী তারেক সালমনের বিরুদ্ধে বরিশাল চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ৫ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা করেন। ওইদিন মামলা আমলে নিয়ে আদালতের বিচারক ২৭ জুলাইয়ের মধ্যে তাকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়ে সমন জারির আদেশ দেন। ১৯ জুলাই হাজির হলে তাকে জামিন দেন আদালত।

মন্তব্য করুন

comments