কোটা সংস্কারের দাবিতে শাহবাগে চলছে আন্দোলন

72
শেয়ার

কোটা পদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে শাহবাগে কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে বিক্ষোভ করছেন বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। তাঁরা বিদ্যমান কোটা পদ্ধতি সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন। আজ রোববার বেলা ১১টা থেকে বিক্ষোভ শুরু হয়।

শত শত শিক্ষার্থী স্লোগান ও হাততালি দিয়ে বিক্ষোভে অংশ নিয়েছেন। তাঁরা বিভিন্ন প্লাকার্ডে ও স্লোগানে স্লোগানে তাঁদের দাবিগুলো তুলে ধরেছেন। প্লাকার্ডগুলোয় লেখা হয়েছে, ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলায় কোটা বৈষম্যের ঠাঁই নাই’, ‘দশ পার্সেন্টের বেশি কোটা নয়’, ‘ নিয়োগে অভিন্ন কার্ড মার্ক নিশ্চিত কর’। তাঁরা স্লোগান দিচ্ছেন, ‘কোটা পদ্ধতির সংস্কার চাই, সংস্কার চাই’।

ওই এলাকায় বিপুল পরিমাণ পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পুলিশ তাঁদের বাধা দেওয়ার চেষ্টা করছে।

আন্দোলনের বিষয়ে জানতে চাইলে এক চাকরি প্রত্যাশী বলেন, ‘আমাদের আন্দোলন কোটার বিপক্ষে না। আমরা আন্দোলন করছি কোটা সংস্কার করে ৫৬ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশ কমিয়ে আনার জন্য। আমরাও চাই মুক্তিযোদ্ধাদের সুযোগ-সুবিধা দেওয়া উচিত। কিন্তু এত বৈষম্য করে না। প্রকৃত মেধাবীদের যদি মূল্যায়ন করা না হয়, তাহলে দেশের শিক্ষিত বেকারের সংখ্যা বেড়ে যাবে। তখন আত্মসম্মান রক্ষা না করতে পেরে, শিক্ষিত বেকাররা আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়।’

আরেক শিক্ষার্থী বলেন, ৫৫ শতাংশ কোটা থাকায় সাধারণ চাকরি প্রত্যাশীরা বৈষম্যের স্বীকার হচ্ছেন। এরপরও বিভিন্ন সময় কোটায় বিশেষ নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। যেমন: ৩২তম বিসিএস, বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী পরিচালক পদে বিশেষ কোটায় নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

রাস্তা অবরোধ করে রাখায় শাহবাগ থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়মুখী রাস্তায় যানবাহন চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

comments