খালেদার রায় ঘিরে সংঘর্ষের ঘটনায় ৫ মামলা

36
শেয়ার

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলার রায়ের দিন গুলশানের বাসা থেকে আদালত পর্যন্ত যাবার পথে রাজধানীর কয়েকটি স্থানে সংঘর্ষের ঘটনায় ৫টি পৃথক মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এর মধ্যে শাহবাগ থানায় ২টি ও রমনা থানায় ৩টি মামলা নথিভুক্ত হয়েছে।

শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ঢাকা মহানগর পুলিশের রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার মারুফ হোসেন সরদার এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার রায় ঘোষণার দিন বিভিন্ন স্থানে সংঘর্ষের ঘটনায় ৫টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর মধ্যে শাহবাগ থানায় ২টি ও রমনা থানায় ৩টি মামলা করা হয়।

সরকারি কাজে বাধা দেয়া, মারধর ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগে এসব মামলা করা হয় বলেও জানান তিনি।

পৃথক থানায় দায়ের করা এসব মামলায় ৩৬৮ জন নেতাকর্মীকে আসামী করা হয়েছে। দলটির কেন্দ্রীয় নেতাদের নামও রয়েছে মামলায়। এছাড়া অজ্ঞাতনামা আরও অনেককেই মামলার আসামী করা হয়েছে।

রমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মাইনুল ইসলাম বলেন, রমনা থানায় হওয়া তিনটি মামলায় মোট ১৬০ জনকে আসামী করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৮ জনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

অন্যদিকে, শাহবাগ থানার ওসি তদন্ত জাফর আলী বিশ্বাস জানান, শাহবাগ থানায় করা দুটি মামলার একটিতে ১০৮ জনকে, অন্যটিতে ১০০ জনকে আসামী করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) পুরানো ঢাকার বকশীবাজারে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালতের বিচারক ড. আখতারুজ্জামান জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে ৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন।

এ ছাড়া মামলার অপর আসামী বিএনপি প্রধানের ছেলে তারেক রহমানসহ বাকী আসামীদের ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। তাছাড়া তাদের ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

ওই দিন খালেদা জিয়া আদালতে যাওয়ার পথে রাজধানীর শাহবাগ ও রমনা থানাধীন বিভিন্ন স্থানে বিএনপি নেতাকর্মীদের সাথে পুলিশ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের কয়েক দফা সংঘর্ষ হয়।

মন্তব্য করুন

comments