X

শহীদুল হকের বিদায়, দায়িত্ব নিলেন পুলিশের নতুন আইজিপি

বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেলের (আইজিপি) দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন জাবেদ পাটোয়ারী।

বুধবার দুপুরে পুলিশ সদর দফতরে আনুষ্ঠানিকভাবে তিনি এ দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এদিকে ৩২ বছরের কর্মজীবনের ইতি টেনে তার হাতে এই দায়িত্ব তুলে দেন সদ্য সাবেক হয়ে যাওয়া আইজিপি একেএম শহীদুল হক।

অনুষ্ঠানে নিজের বর্ণাঢ্যময় চাকরি জীবনের স্মৃতিচারণ করেন শহীদুল হক। এ সময় বাংলাদেশ পুলিশের পক্ষ থেকে তাকে বিদায়ী সংবর্ধনা দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে শহীদুল হক বলেন, আইজিপি হিসেবে দায়িত্ব শেষ হওয়ার মাধ্যমে পূর্ণ সন্তুষ্টি নিয়ে ৩২ বছরের চাকরি জীবনের ইতি টানছি।

দায়িত্ব পালনকালে অনেক ষড়যন্ত্র হয়েছে উল্লেখ করে শহীদুল হক বলেন, গত তিন বছর এক মাস আইজিপি হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে চেষ্টা করেছি পুলিশের সক্ষমতা উঁচুমাত্রায় নিয়ে যেতে এবং পুলিশকে জনবান্ধব করতে। আমি সাহকিতার সঙ্গে সব সংকট মোকাবেলা করতে সক্ষম হয়েছি।

তিনি বলেন, গত তিন বছরে পুলিশে যা অর্জন তার কৃতিত্ব কনস্টেবল থেকে আইজি পর্যন্ত সবার। আর সব ব্যর্থতার দায় আমার। দায়িত্ব পালনকালে পুলিশের সবাইকে হয়তো খুশি করতে পারিনি। একটা প্রশাসনিক কাঠামোতে কাজ করতে হয়েছে। এর বাইরে কিছু চাপ, কিছু গাইডলাইন থাকে। ব্যক্তিগতভাবে আমি কারো প্রতি বিরাগভাজন ছিলাম না।

৯৯৯- জরুরি সেবা ছিল সবচেয়ে যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত উল্লেখ করে শহীদুল হক বলেন, স্বপ্ন অনেক থাকে কিন্তু সব তো পূরণ হয় না। তবে অধিকাংশ কর্মপরিকল্পনাই বাস্তবায়ন করেছি। পুলিশের পেশাদারিত্বের জন্য ২০টি নির্দেশনা দিয়ে গেছি।

এ সময় পুলিশের নতুন রিক্রুটদের নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন শহীদুল হক। তিনি বলেন, আমি থানা পর্যায়ে সেবার মান বাড়াতে অনেক চেষ্টা করেছি, অনেক উন্নতি হয়েছে কিন্তু পুরোপুরি পরিবর্তন হয়নি। যদিও এটা সময় সাপেক্ষ ব্যাপার। পুলিশে নতুন ছেলেরা আসছে, আশা করব তারাই মানুষের প্রত্যাশা পূরণ করবে।

অনুষ্ঠানে দায়িত্ব গ্রহণের পর নবনিযুক্ত আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, মানুষের কাছাকাছি যাওয়ার পুলিশের যে প্রয়াস, সেটা অব্যাহত রাখতে পারলে আরও সামনে এগিয়ে যাওয়া সম্ভব।

তিনি বলেন, বিগত দিনগুলোতে আইজিপিকে সবাই যেভাবে সহায়তা করেছেন, দেশকে এগিয়ে নিতে সামনের দিনগুলোতেও সে সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলে আশা করি।

মন্তব্য করুন

comments