X

‘প্রশ্ন ফাঁসের প্রমান পেলে পরীক্ষা বাতিল’-শিক্ষামন্ত্রী

ফাইল ছবি

আসন্ন এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার পরও প্রশ্নফাঁসের প্রমাণ পেলে সেই পরীক্ষা বাতিল করা হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। এছাড়া পরীক্ষার ৩০ মিনিট আগে শিক্ষার্থীরা আসনে না বসলে তাকে অনুপস্থিত দেখানো হবে বলেও জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার সকালে আসন্ন পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে সচিবালয়ে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সভাপতিত্বে জাতীয় রিটরিং কমিটির সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, প্রশ্ন ফাঁসের ব্যাপারে আমরা খুবই ডেসপারেট, খুবই অ্যাগ্রেসিভ। আগামী প্রজন্মের জন্য ডেসপারেট, অ্যাগ্রেসিভভাবে মোকাবেলা করতে না পারলে হবে না।

এতোদিন ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষা কেন্দ্রে বা হলে উপস্থিতির বাধ্যবাধকতা থাকলেও প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে ৯টা ৩০ মিনিটে সিটে বসতে হবে। সিটে না থাকলে অ্যাবসেন্স দেখাবে ইনভিজিলেটর। ৩০ মিনিট আগে উপস্থিতির বিষয়টি আরও প্রচার করতে হবে বলে জানান নাহিদ।

আর ৭দিন আগে থেকেই কোচিং সেন্টারগুলো বন্ধ রাখা হবে বলেও জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। আগে যা তিনদিন রাখা ছিলো।

এসময় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব সোহরাব হোসাইন বলেন, যদি এ রকম ঘটনা ঘটে, প্রশ্ন আগেই আউট হয়েছে, সেক্ষেত্রে সেই পরীক্ষা বাতিল হবে।

এর আগে বিভিন্ন সময় প্রশ্নফাঁসের যে অভিযোগ উঠেছে তা উড়িয়ে দিয়ে সচিব বলেন, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ভুয়া প্রশ্ন পাওয়া গেছে। আর ফাঁস হলেও প্রশ্ন সেট বদল করে পরীক্ষা নেওয়া হবে।

মন্তব্য করুন

comments