X

‘সরকারের শীর্ষ ব্যক্তিদের বাসভবনে বিমান হামলার পরিকল্পনা ছিল’

জঙ্গিবাদের সঙ্গে জড়িত পাইলট সাব্বিরসহ গ্রেফতার চারজনকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, তারা উড্ডয়নরত বিমান জিম্মি করে সরকারের উচ্চপর্যায়ের ব্যক্তিদের বাসভবনে আঘাত হানার পরিকল্পনা করছিলেন। মিরপুরে জঙ্গি আস্তানায় নিহত আবদুল্লাহর দেয়া ছক অনুযায়ী তারা কাজ করছিলেন।

মঙ্গলবার বিকেলে কারওয়ানবাজারের র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন এই তথ্য।

এর আগে সোমবার রাতে রাজধানীর মিরপুরের দারুসসালামের বর্ধনবাড়ি এলাকা থেকে বিমান নিয়ে নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে পাইলট সাব্বিরসহ (বাংলাদেশ বিমানের ফার্স্ট অফিসার) ৪ জনকে গ্রেফতার করেছিলো র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

তারা রাজধানীর দারুস সালামে নিহত জঙ্গি আব্দুল্লাহর সহযোগী এবং জেএমবি সদস্য।গ্রেফতারকৃত অপর তিনজন হলেন- সাব্বিরের মা সুলতানা পারভিন, তার চাচাতো ভাই আরিফুর রহমান আসিফ ও বর্ধনবাড়ি এলাকার চা দোকানি।

ওই বাড়ি থেকে বিপুল পরিমাণে বোমা, বিস্ফোরক ও রাসায়নিক উপাদান উদ্ধারের পাশাপাশি ঢাকায় নাশকতার একটি পরিকল্পনার নকশা উদ্ধার করে। এ ঘটনায় বাড়ির মালিক সাব্বিরের বাবাকে আটক করে। সাব্বিরকে বিমানে তার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। বিষয়টি তদন্তে নেমে র‌্যাব সাব্বিরের বিমান নিয়ে হামলার পরিকল্পনা উদ্ধার করে।

র‌্যাব জানায়, সাব্বির বাংলাদেশ বিমানের একটি বিমান নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে হামলার পরিকল্পনা করেছিল। এটি বাস্তবায়ন না হলে একটি বিমান নিয়ন্ত্রণ নিয়ে মধ্যপ্রাচ্যের একটি দেশে যাওয়ার কথা ছিল।

কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান জানান, তারা জঙ্গি আবদুল্লাহর তত্ত্বাবধানে কাজ করতেন। গত ২৬ অক্টোবর বিল্লালের কাছ থেকে র‌্যাব এই তথ্য পেয়ে চারজনকে আটক করেছে। তাদেরকে আরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

comments