X

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়াই একমাত্র সমাধান: সুষমা

মিয়ানমারে সেনা অভিযানের মুখে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের সেদেশে ফিরে যাওয়াই এই সংকটের সমাধান বলে মনে করছে ভারতও।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে উদ্বেগ প্রকাশ করে সফররত ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ বলেছেন, রোহিঙ্গা ইস্যু নিরসনে কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়ন দেখতে চায় ভারত।

রোববার ঢাকা সফররত ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সঙ্গে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর বৈঠকের পর এক যৌথ বিবৃতিতে একথা জানানো হয়।

“কেবল বাস্তুচ্যুত ব্যক্তিদের রাখাইন রাজ্যে ফেরত যাওয়ার মধ্য দিয়েই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে,” বলা হয়েছে বিবৃতিতে।

মিয়ানমারের রাখাইনে সেনাবাহিনীর দমন অভিযানের মুখে গত দুই মাসে প্রায় ছয় লাখ রোহিঙ্গা ঘর-বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। সেখানে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্বিচারে হত্যাকাণ্ড, ঘরে অগ্নিসংযোগ ও ধর্ষণের মতো মানবতাবিরোধী অপরাধ সংঘটনের অভিযোগ উঠেছে।

লাখ লাখ রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেওয়া বাংলাদেশ সরকার বলছে, মিয়ানমারে ‘জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত’ এই জনগোষ্ঠীকে মানবিক কারণে সহায়তা দেওয়া হয়েছে। মিয়ানমারকে তাদের নাগরিকদের নিরাপত্তার সঙ্গে ফিরিয়ে নিয়ে পুনর্বাসন করতে হবে।

এই বিষয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে কূটনৈতিক তৎপরতার পাশাপাশি মিয়ানমারের সঙ্গেও দ্বিপক্ষীয় আলোচনা শুরু করেছে সরকার।

বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের জন্য ভারত জরুরি ত্রাণ সহায়তা পাঠালেও তাদের দেশে ফেরা নিয়ে এর আগে স্পষ্ট বক্তব্য আসেনি দিল্লির।

মিয়ানমারে নিধনযজ্ঞের মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা এই মানুষদের বোঝাতে ‘রোহিঙ্গা’ শব্দ ব্যবহার করেননি সুষমা স্বরাজ, রাখাইন রাজ্যের ‘বাস্তুচ্যুত ব্যক্তিবর্গ’ বলেছেন তিনি।

সুষমা স্বরাজ বলেন, “মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সহিংসতায় ভারত গভীরভাবে উদ্বিগ্ন।”

মাহমুদ আলী বলেন, ভারত-বাংলাদেশের যৌথ পরামর্শক কমিশনের বৈঠকে তারা ভারতের প্রতি মিয়ানমারের ‍ওপর চাপ দেওয়ার আহ্বান জানান, যাতে রোহিঙ্গাদের তাদের নিজ ভূমিতে প্রত্যাবর্তনসহ সমস্যার স্থায়ী সমাধান হয়।

মন্তব্য করুন

comments