মালয়েশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে

27
শেয়ার

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনের শিকার হয়ে রাখাইন থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা মুসলিমদের দুর্দশা শুনতে কক্সবাজার গেছেন সফররত মালয়েশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী আহমেদ জাহিদ হামিদি। সোমবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে তাকে বহনকারী বিশেষ বিমান হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছাড়ে। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে আহমেদ জাহিদ হামিদি কক্সবাজার পৌঁছান।

সেখানে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে দুপুরের পর মালয়েশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ ছেড়ে যাবেন। এদিকে, গতকাল রোববার সন্ধ্যায় ঢাকার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন আহমেদ জাহিদ হামিদি।

বৈঠক শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে মালয়েশিয়া সরকার আমাদের সঙ্গে রয়েছে। তিনি জানান, মালয়েশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে একটি ফিল্ড হাসপাতাল করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। সেখানে প্রায় ৩ লাখ রোহিঙ্গা ফ্রি চিকিৎসা নিতে পারবে। খুব তাড়াতাড়ি বড় ধরনের এই হাসপাতাল নির্মাণকাজ শুরু হবে বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

এ সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মালয়েশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী আহমেদ জাহিদ হামিদি বলেন, রোহিঙ্গা আন্তর্জাতিক ইস্যু। বিষয়টি নিয়ে আমরা আলোচনা করছি। রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর বিষয়েও বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী ও মালয়েশিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রী আহমেদ জাহিদ নিজ নিজ দেশের পক্ষে বৈঠকে নেতৃত্ব দেন। এছাড়া বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি প্রমুখ। বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, রোহিঙ্গ ইস্যু ছাড়াও বাংলাদেশ ও মালয়েশিয়ার মধ্যে শ্রমশক্তি রপ্তানির বিষয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

comments