রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে মিয়ানমার যাচ্ছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

21
শেয়ার

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেয়াসহ বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে আলোচনার জন্য মিয়ানমার সফরে যাচ্ছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

রোববার দুপুরে সচিবালয়ে জাতীয় চোরাচালান প্রতিরোধ সংক্রান্ত্র বৈঠকের পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

মন্ত্রী বলেন, কূটনৈতিক তৎপরতার মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানো সম্ভব হবে। তাই এ মাসেই মিয়ানমার যাওয়ার প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। সফরের কর্মসূচি নির্ধারণ করা হয়েছে কিনা- জানতে চাইলে তিনি বলেন, মিয়ানমার সফরের বিষয়টি আগেই আলোচনায় ছিল। ২৫ আগস্টের পর পরিস্থিতি পাল্টেছে। এখন সফরে আলোচনার প্রধান বিষয় হবে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার বিষয়টি। এজেন্ডা টিক করার জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও মিয়ানমারে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত কাজ করছেন। চলতি মাসেই সফরের সম্ভাবনা রয়েছে।

তিনি বলেন, ৮০ হাজার রোহিঙ্গা নিবন্ধনের আওতায় এসেছে। আজকের মধ্যে রোহিঙ্গা নিবন্ধনের সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়ে যাবে। নিবন্ধনের আওতায় না আসলে সব ধরনের সহায়তা বঞ্চিত হবেন রোহিঙ্গারা। আমাদের দেশের প্রচলিত আইন মেনে তাদের চলতে হবে। এই বিষয়গুলো আমরা তাদেরকে জানিয়ে দিয়েছি। সীমোন্তের ১৬টি পয়েন্টে স্ক্যানিং মেশিন বসানো হবে। কারণ গত বছরের তুলনায় এ বছর অস্ত্র উদ্ধার বেশি হয়েছে। মূলত পুলিশি তৎপরতার কারণে এ মাসে বেশি অস্ত্র উদ্ধার হয়েছে।

টেলিফোন বা মোবাইল থেকে ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে সব ধরনের নাগরিক সেবা পাওয়া যাবে বলে জানান আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। এর আওতায় থাকবে অ্যাম্বুলেন্স সেবা, ফায়ার সার্ভিস সেবা, পুলিশসহ নিরাপত্তা-সংশ্লিষ্ট সব ধরনের সেবা। তিনি বলেন, বিশ্বের উন্নত সব দেশেই একটি নির্দিষ্ট নম্বরে ফোন করে নাগরিকরা সব ধরনের সুবিধা পেয়ে থাকেন। আমাদের দেশেও এ ধরনের একটি পদ্ধতি চালু করতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) মন্ত্রণালয় বহু দিন ধরে কাজ করে আসছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, আজ আইসিটি মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এই সেবা চালুর খবর দেওয়া হয়েছে। দেশের যেকোনো নাগরিক ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে, অ্যাম্বুলেন্স সেবা, ফায়ার সার্ভিস সেবা, পুলিশি সেবাসহ নিরাপত্তাজনিত বিভিন্ন সেবা পাবেন। পর্যায়ক্রমে এই সেবার পরিধি বাড়বে।

এ সময় সভায় উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক ও পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক।

শহীদুল হক বলেন, নতুন এই সেবা পরিচালনা করবে পুলিশ। নাগরিকদের প্রয়োজন অনুযায়ী সংশ্লিষ্ট পক্ষের কাছে ফোনকল হস্তান্তর করা হবে।

মন্তব্য করুন

comments