শর্ত সাপেক্ষে শরনার্থিদের ফেরত নেবো: যুক্তরাষ্ট্রে মিয়ানমার রাষ্টদূত

322
শেয়ার

যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত উ অং লিন ভয়েস অফ আমেরিকার উর্দু বিভাগকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন যে রাখাইন রাজ্যে সন্ত্রাসীরা সমস্যা সৃষ্টি করেছে।

তিনি বলেন যে, তিন লক্ষ সত্তর হাজার শরণার্থী সংখ্যার কথা বলা হচ্ছে সে নিয়ে তিনি দ্বিমত প্রকাশ করছেন না কিন্তু যারা এটা প্রমাণ করতে পারবে যে তারা মিয়ানমারের প্রকৃত গ্রামবাসি , তাদেরকে গ্রহণ করা হবে। বার বার জিজ্ঞেষ করার পর ও তিনি এই প্রশ্নের কোন উত্তর দেননি যে শরণার্থীরা মিয়ানমার থেকে না গেলে কোথা থেকেই বা যাবে।

তিনি আরও বলেন যে মিয়ানমার রোহিঙ্গা শব্দটিই ব্যবহার করে না এবং এই সব লোকজনকে প্রমাণ করতে হবে যে তারা শান্তিতে বসবাস করবে , তবেই মিয়ানমার সরকার তাদের ফেরত নেবে। তিনি আরও বলেন যে অন সাং সুচি কেবল রাখাইন রাজ্যে নয় গোটা দেশেই এই সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করছেন , সে জন্যই তিনি ঐ অঞ্চলে যাননি। জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে সূচি ‘র অনুপস্থিতি সম্পর্কে তিনি বলেন যে সূচি বিশ্বকে এ কথাই জানাতে চান যে তিনি তাঁর দেশের সমস্যা নিয়ে কাজ করছেন।

বাংলাদেশ সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে রাষ্ট্রদূত লিন বলেন বাংলাদেশ আমাদের ভাল প্রতিবেশি । পরাস্পরিক আলোচনা এবং বৈঠকের সুযোগ আছে আমাদের। সম্প্রতি মিয়ানমারের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা বাংলাদেশ সফর করেছেন এবং যে কোন সময়ে আমাদের দু দেশের মধ্যে বৈঠক হতেই পারে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মিয়ানমারকে তার নাগরিক ফিরিয়ে নেয়ার যে দাবি জানিয়েছেন সে সম্পর্কে রাষ্ট্রদূত বলেন আমরা অবশ্যই তাদের ফেরত নেবো যারা প্রমাণ করতে পারে যে তারা আসলেই সেখানকার গ্রামবাসি।

মন্তব্য করুন

comments