রোহিঙ্গাদের কথা শুনে কাঁদলেন প্রধানমন্ত্রী

44
শেয়ার

কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্পে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সঙ্গে কথা বলে তাদের কষ্টের কথা শুনে কাঁদলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় আবেগে নারী-শিশুদের জড়িয়ে ধরেন। পরম মমতায় প্রধানমন্ত্রী তাদের বুকে টেনে নেন।

মঙ্গলবার (১২ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী। এ সময় ক্যাম্পে তাদের সঙ্গে কথা বলেন।

আশ্রয় নেওয়া অসহায় রোহিঙ্গা নাগরিকরা তাদের ভাষায় প্রধানমন্ত্রীকে দুঃখ কষ্টের কথা বলেন। একজন দোভাষি পারস্পরিক কথাবার্তায় সহযোগিতা করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘মানবিক দিক বিবেচনা করে আমরা তাদের আশ্রয় দিয়েছি। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময়ও আমাদের মানুষদের ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দেওয়া হয়। মানুষ উপায় না পেয়ে ভারতে পালিয়ে যায়। তাই আমাদের যতটুকু সামর্থ আছে সাহায্য করছি। এ বিষয়ে আমরা কমিটিও করে দিয়েছি।’ তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের খাদ্য, আশ্রয় দেওয়া হচ্ছে। আমি রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোকে আহ্বান জানাচ্ছি। তবে প্রতিবেশী দেশ হিসেবে আমাদের যা করার দরকার আমরা সেটি করবো।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা ১৬ কোটি মানুষের দেশ। সবার খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারছি। সেখানে আরও ২/৫/৭ লাখ মানুষকেও খেতে দিতে পারবো।’

এ সময় তিনি স্থানীয়দের উদ্দেশে বলেন, ‘এখন যারা যুবক তারা হয়তো মুক্তিযুদ্ধ দেখেননি। কিন্তু আমরা দেখেছি। তাই রোহিঙ্গাদের যেন কোনও কষ্ট না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।’

মন্তব্য করুন

comments