আত্মসমর্পণ নয়,আত্মঘাতি হলেন ‘জঙ্গি’আব্দুল্লাহ এবং তার সহযোগীরা

81
শেয়ার

আত্মসমর্পণ নয় শেষ পর্যন্ত আত্মঘাতি হলেন জঙ্গি আব্দুল্লাহ এবং তার সহযোগীরা।সন্দেহভাজন জঙ্গি আবদুল্লাহ ও তার সহযোগীরা আত্মসমর্পণ করবেন বলে র‌্যাব সদস্যদের অপেক্ষার মধ্যে মঙ্গলবার রাত পৌনে ১০টার দিকে ভবনটিতে বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। এতে ছয়তলা ভবনের পঞ্চম তলায় ‘জঙ্গিদের’ ফ্ল্যাটে আগুন ধরে যায়।

এসময় আগুনের কুণ্ডলিতে আশপাশের এলাকা আলোকিত হয়ে ওঠে। এরপর সেখানে কয়েক দফা গুলির শব্দ শোনা যায়। এ সময় এলাকাবাসীর মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।আর ওই বিস্ফোরণে আহত হয়েছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) চার সদস্য।

বিস্ফোরণের পর র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান সাংবাদিকদের বলেন, “ভিতরে যারা ছিল তারাই বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে। তিনটি বড় বড় বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে, তার পরিপ্রেক্ষিতে আরও কিছু বিস্ফোরণ ঘটেছে।

মাজার রোডের পাশে বর্ধনবাড়ি ভাঙ্গা ওয়ালের গলির ২/৩-বি হোল্ডিংয়ে ছয় তলা ওই ভবনের পঞ্চম তলায় আবদুল্লাহ, তার দুই স্ত্রী, দুই সন্তান ও দুই সহযোগীসহ মোট সাতজন অবস্থান নিয়েছিলেন র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ দুপুরে জানান।

মঙ্গলবার রাত ৯টা ৪০ মিনিটের দিকে ওই ভবন থেকে বোমা বিস্ফোরণের বিকট শব্দ পাওয়া যায়। একে একে পাঁচটি বোমা বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়া যায়। এর মধ্যে তিনটি বিস্ফোরণের শব্দ ছিল অনেক বেশি। পরে দেখা যায় ওই ভবনে আগুন জ্বলছে।

বোমা বিস্ফোরণের পর ওই ভবনের একাংশ ধসে পড়ে।পঞ্চম তলার ওই ফ্ল্যাটের জানালার গ্রিল এবং বারান্দার দেওয়াল ধসে গেছে বলে ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

মুফতি মাহমুদ সাংবাদিকদের জানান, ‘জঙ্গি’রা আত্মসমর্পণ না করে নিজেরাই ওই ভবনে বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। এতে ভবনটির পঞ্চম তলায় আগুন লাগে। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ফায়ার সার্ভিস কাজ করবে। র‍্যাবের আহত সদস্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

বিস্ফোরণের পর ওই ভবনের ভেতরে থাকা মানুষদের কী অবস্থা এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মুফতি মাহমুদ বলেন, ‘এখনো স্পষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। অভিযানের পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়ার পর গণমাধ্যমে তা জানানো হবে।’

সন্ধ্যা ছয়টায় মুফতি মাহমুদ সাংবাদিকদের জানান, ওই ভবনে থাকা ‘জঙ্গি’ আবদুল্লাহর সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়েছে। আবদুল্লাহ রাত ৮টার মধ্যে আরো ছয়জন নিয়ে আত্মসমর্পণ করবেন বলে জানান।রাত ৮টার পর আবার যোগাযোগ করা হলে আরো ৩০ মিনিট সময় চান আবদুল্লাহ। কিন্তু পৌনে ১০টার দিকে ওই ভবনে নিজেরাই বোমা বিস্ফোরণ ঘটায় ‘জঙ্গি’রা।

মুফতি আরো জানান, গত রাত থেকেই র‍্যাবের উদ্দেশ্য ছিল ভবনের অন্যান্য বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়া।যা দুপুরের মধ্যেই সম্ভব হয়েছে।

এর আগে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ বলেন, আব্দুল্লাহ দুর্ধর্ষ জঙ্গি। তার সঙ্গে আমাদের রাত ৪টা থেকে যোগাযোগ হচ্ছে। তাকে আমরা বিভিন্নভাবে আত্মসমর্পণের জন্য আহ্বান জানাই। তিনি আহ্বানে সাড়া দিয়ে কিছুটা সময় চেয়েছেন। আমরা সর্বোচ্চ সহিষ্ণুতার পরিচয় দিচ্ছি। এরপরও তিনি যদি আত্মসমর্পণ না করেন এবং র‌্যাবের ওপর হামলার চেষ্টা করেন তাহলে আমরা আইনি পদ্ধতিতে অভিযানে যাব। বাড়িটিতে মোট ২৪টি ফ্ল্যাট রয়েছে। তবে এরই মধ্যে নারী ও শিশুসহ সব বাসিন্দাদের নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

মন্তব্য করুন

comments