X

ই-ভিসা জটিলতায় বাতিল হচ্ছে হজ্ব ফ্লাইট

ই-ভিসা জটিলতা ও যাত্রী সংকটের কারণে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের দুটি সিডিউল হজ্ব ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে আজ।

বাতিল হওয়া হজ্ব ফ্লাইট দুটির মধ্যে বিজি-৩০২৯ সোমবার সকাল ১০টা ৫৫ মিনিটে এবং বিজি-৩০৩১ মঙ্গলবার ভোর ৪টা ৫৫ মিনিটে সৌদির উদ্দেশ্যে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিল।

এ ব্যাপারে বিমান কর্তৃপক্ষ জানায়, নির্ধারিত সংখ্যক ফ্লাইট তৈরি থাকার পরও ঠিক সময়ে ই-ভিসা না আসার কারণে বহুসংখ্যক যাত্রী হজ্বে যেতে পারছেন না। এ কারণেই ফ্লাইট বাতিল করতে হয়েছে।

এ বছর থেকে সৌদি আরব কর্তৃক প্রবর্তিত ই-ভিসা নিয়ে জটিলতা ও ভোগান্তি বেড়েই চলেছে। হজ যাত্রীরা প্রতিদিনই শিকার হচ্ছেন চরম বিড়ম্বনার।

উল্লেখ্য, ভিসা জটিলতার কারণে গতকাল রবিবারও বিমানের একটি হজ্ব ফ্লাইট বাতিল করা হয়। এর আগে শুক্রবার বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এবং সৌদি এয়ারলাইন্সের দুটি হজ্ব ফ্লাইট কম যাত্রী নিয়ে জেদ্দার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। এর মধ্যে সৌদি এয়ারলাইন্স ৭৮ জন হজ্বযাত্রীকে রেখেই চলে যায়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে,এবার সৌদি ভিসা অনলাইনে করা হয়েছে। পাসপোর্টে কোন ভিসা থাকছে না। হজ্বে যাওয়ার সময় পাসপোর্টের সঙ্গে আলাদা কাগজে ই-ভিসার প্রিন্ট করা কপি সঙ্গে রাখার বাধ্যবাধকতা করা হয়েছে। সাদা কাগজে প্রিন্ট করা এই ই-ভিসা দেখে অনলাইনে চেক করে বিমান বন্দরের ইমিগ্রেশন পুলিশ পাস দিচ্ছে।

কিন্তু সার্ভারের সিস্টেম জটিলতা দেখা দেওয়ায় অনলাইনে ই-ভিসার প্রিন্ট নিতে সমস্যা হচ্ছে।সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার পর প্রিন্ট করতে গিয়ে অনেকের ভিসা প্রিন্ট হচ্ছে না। পরে দৌড়াতে হচ্ছে সৌদি দূতাবাসে। সেখানেও দ্রুত সমস্যা মিটছে না। আবেদন সৌদি দূতাবাসে পাঠানোর পর ভিসা নিয়ে সময়ক্ষেপন করছে। আর পাসপোর্টের সঙ্গে ই-ভিসার প্রিন্ট করা কপি না থাকলে এয়ারলাইনস অফিসাররা ও ফেরত পাঠাচ্ছে।

এ সমস্যা জটিল হওয়ায় সংশ্লিষ্টদের মধ্যে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে। সমস্যার দ্রুত সমাধান না হলে অনেকেই নির্দিষ্ট সময়ে সৌদি আরবে যেতে পারবেন না। যদিও ধর্ম মন্ত্রণালয় বলছে, উদ্ভূত সমস্যা সহসাই কেটে যাবে মন্ত্রণালয়ের এমন আশ্বাসেও উদ্বেগ কাটছে না ভুক্তভোগী হজযাত্রীদের।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব আবদুল জলিল বলেন, এই জটিলতা নিরসনের জন্য মন্ত্রণালয় থেকে মক্কার অফিসকে জানানো হয়েছে। সৌদি আরবের আরোপ করা নিয়ম-কানুন আমাদের মেনে চলতে হচ্ছে। আশা করি সহসাই সমস্যা কেটে যাবে। সৌদি আরব নিশ্চয়ই এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেবে।

এ পর্যন্ত সৌদি আরবে পৌঁছেছে ৬০টি হজ্ব ফ্লাইট। এর মধ্যে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স পরিচালিত ২৮টি এবং সৌদি এয়ারলাইন্স পরিচালিত ৩২টি ফ্লাইট সৌদি আরব গিয়ে পৌঁছেছে।

মন্তব্য করুন

comments