X

সুইস ব্যাংকে প্রিন্স মুসার ৯৬ হাজার কোটি টাকা, মামলা দায়ের

সোমবার (৩১ জুলাই) গুলশান থানায় প্রিন্স মুসা বিন শমসেরের বিরুদ্ধে শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগ অর্থপাচার (মানিলন্ডারিং) প্রতিরোধ আইনে মামলা দায়ের করেছে।

তার বিরূদ্ধে অভিযোগ তিনি সুইস ব্যাংকে ৯৬ হাজার কোটি টাকা রাখার বিষয়ে অস্বচ্ছ হিসাব দাখিল এবং বিলাসবহুল গাড়িতে ২ কোটি ১৭ লাখ টাকা শুল্ক ফাঁকি দিয়েছেন। শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগের মহাপরিচালক ড. মইনুল খান একথা জানিয়েছেন।

গোয়েন্দাদের জিজ্ঞাসাবাদে প্রিন্স মুসা লিখিতভাবে জানান, সুইস ব্যাংকে তার ৯৬ হাজার কোটি টাকা গচ্ছিত আছে। কিন্তু তিনি এই টাকার কোনও ব্যাংক হিসাব বা বৈধ উৎস দেখাননি। এ টাকার কোনো বৈধ উৎস তিনি শুল্ক গোয়েন্দাকে দেখাতে পারেনি। কয়েকবার নোটিশ দিলেও তিনি তা জমা দেননি।

 

এছাড়া, প্রিন্স মুসা ১৭ লাখ টাকা শুল্ক পরিশোধ দেখিয়ে বিল অব এন্ট্রি প্রদর্শন করে শুল্কমুক্ত সুবিধায় আনা একটি রেঞ্জ রোভার গাড়ি ভোলা বিআরটিএ-র কিছু কর্মকর্তার যোগসাজসে ভূয়া রেজিষ্ট্রেশন নিয়ে ব্যবহার করছিলেন প্রিন্স মূসা। কিন্তু, শুল্ক গোয়েন্দার অনুসন্ধানে দেখা যায় এই গাড়িতে ২ কোটি ১৬ কোটি টাকা শুল্ক জড়িত।

শুল্ক ও গোয়েন্দা অনুসন্ধানে জানা যায়, ১৩০ শতাংশ শুল্ক দিয়ে গাড়িটি (ভোলা-ঘ-১১-০০-৩৫) রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছিল। কাস্টম হাউসের নথি যাচাই করে শুল্ক গোয়েন্দারা জানতে পারেন গাড়িটির বিল অব এন্ট্রি ভুয়া। রেজিস্ট্রেশনে গাড়িটির রঙ সাদা উল্লেখ থাকলেও উদ্ধার করা গাড়িটির রঙ কালো।

গাড়িটি কার্নেট সুবিধায় আনা হয়েছিল। তবে এ সুবিধার অপব্যবহার করে এবং ব্যক্তিগত আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার জন্য ভুয়া শুল্ক পরিশোধের কাগজ দিয়ে গাড়িটি তিনি ব্যবহার করছিলেন।

বিআরটিএতে দাখিল বিল অব এন্ট্রিটি ভূয়া হিসেবে প্রমাণ পাওয়া যায়। তার এই অপরাধ দুদকের শিডিউলভুক্ত হওয়ায় শুল্ক গোয়েন্দা দুদক কর্তৃক মামলা ও তদন্ত করার সুপারিশ করে।

মন্তব্য করুন

comments