দ্বিতীয় দফায় গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি অবৈধ: হাইকোর্ট

52
শেয়ার

চলতি বছর দ্বিতীয় দফায় আবাসিক গ্রাহকদের গ্যাসের দাম দেড়শ টাকা বাড়ানের সিদ্ধান্তকে অবৈধ ঘোষণা করে রায় দিয়েছে হাই কোর্ট।

গৃহস্থলী কাজে ব্যবহারের জন্য দ্বিতীয় ধাপে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্তকে অবৈধ ঘোষণা করেছেন হাইকোর্ট। বিষয়টি এনার্জি রেগুলেশন কমিশনকে গণ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জনগণকে জানিয়ে দেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। গত ১ জুন থেকে দ্বিতীয় দফায় গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়।

এ বিষয়ে গত ফেব্রুয়ারি মাসে হাই কোর্টের দেওয়া রুলের ওপর চূড়ান্ত শুনানি শেষে বিচারপতি জিনাত আরা ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের বেঞ্চ এই রায় দেয়। বিইআরসি গত ১ জুন থেকে গৃহস্থালীর সংযোগে এক চুলার মাসিক বিল ৭৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৯০০ টাকা এবং দুই চুলার ক্ষেত্রে ৮০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৯৫০ টাকা করার যে সিদ্ধান্ত কার্যকর করেছে, তা অবৈধ।

রায়ে বলা হয়, ১ অগাস্ট থেকে কর্তৃপক্ষ আর ওই বাড়তি হারে বিল আদায় করতে পারবে না। তার আগেই বিজ্ঞপ্তি দিয়ে বিষয়টি সবাইকে জানাতে হবে। ফলে আগস্ট মাস থেকে গৃহস্থলি কাজে ব্যাবহার হওয়া গ্যাসের দাম আগের দামেই ফিরে যাবে বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

বিইআরসি গত ২৩ ফেব্রুয়ারি গৃহস্থালি ও গাড়ির জ্বালানি হিসেবে ব্যবহৃত গ্যাসের দাম বাড়িয়ে গণবিজ্ঞপ্তি দেয়। ঐ বিজ্ঞপ্তিতে, গত মার্চ থেকে প্রতি চুলা গ্যাসের দাম বেড়ে হয় ৭৫০ টাকা, যা জুনে বেড়ে গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৯০০ টাকায়। আর মার্চ থেকে দুই চুলা গ্যাসের দাম হয় ৮০০ টাকা, যা জুনে গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৯৫০ টাকায়।

উল্লেখ্য, গত ২৩ ফেব্রুয়ারি বিকেলে রাজধানীর কারওয়ানবাজারে বিইআরসি ভবনে সংবাদ সম্মেলন করে গ্যাসের দাম বৃদ্ধির ঘোষণা দেন বিইআরসি’র চেয়ারম্যান মনোয়ার ইসলাম। পরে এ দাম বাড়ানোর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করেন কনজুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) কনজুমার কমপ্লেইন হ্যান্ডলিং ন্যাশনাল কমিটির আহ্বায়ক স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন।

ভোক্তা অধিকারকর্মীরা ছাড়াও বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠন সে সময় গ্যাসের দাম বৃদ্ধির ওই সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানায়। বাম দলগুলো ঢাকায় হরতাল করে।

মন্তব্য করুন

comments