X

মানবিকতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন কনস্টেবল আফতাব

ঘটনাটি মহেশখালীর আদিনাথ মন্দিরের। মহাশিবরাত্রি এবং শিব চতুর্দশী মেলা উপলক্ষে লোকে লোকারণ্য পুরো মন্দির এলাকা। পূর্ণ্যার্থীদের সময় মতো পূজা দিতে হবে, তাই যে যার মতো পূজো দিতে সামনের দিকে ছুটছে।

একজন হিন্দু বৃদ্ধা মা কাতর স্বরে সবার কাছে আকুতি মিনতি করে চলছে- উনাকে যেনো মূল মন্দিরে ঢোকার সুযোগ দেওয়া হয়।

বহু সময় ধরে এই অবস্থা চলার পর সেই বৃদ্ধা মায়ের অনুরোধ সবাই অগ্রাহ্য করলেও এমন মানবিক দৃশ্যটি চোখ এড়ায়নি পুলিশ কনস্টবল আফতাবউদ্দিনের।

বৃদ্ধার করুণ আকুতির প্রতি সাড়া দিয়ে পুলিশ কনস্টেবল আফতাবউদ্দিন সেই বৃদ্ধাকে পাঁজাকোলা করে বুকে তুলে নিলেন প্রায়ই হাঁটতে অক্ষম এই মাকে।

মন্দিরের একেবারে জিরো পয়েন্টে নিয়ে গিয়ে পূজা ও প্রাণখুলে প্রার্থনা করবার সুযোগ করে দিয়ে শেষে আবারো কোলে করে আবার রেখে আসলেন নিরাপদ অবস্থানে।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) উপরের ছবিসহ ঘটনার বর্ণনা দিয়েছে একজন ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন। ওই স্ট্যাটাসটি রীতিমতো ভাইরাল।

ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি বলেন, মানবিকতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করায় পুলিশ কনস্টেবল আফতাব উদ্দিনকে স্যালুট।

এ বিষয়ে বিনয়ী এই পুলিশ কনস্টেবল বলেন, ‘বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সম্ভবত হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের শিব পূজা উপলক্ষে হাজারো মানুষের জমায়েত ছিল আদিনাথ মন্দিরে। ভারত থেকেও অনেকে এসেছিলেন পূজা দিতে। আমরা দুপুরের দিকে ডিউটিতে ছিলাম। এসময় সিঁড়ির নিচে ওই বৃদ্ধা মহিলার আকুতি আমাকে নাড়া দিয়েছিল। আমি উনাকে নিজে তুলে সিঁড়ি বেয়ে উপরে নিয়ে গেছি। আবার নামিয়েও এনেছি। এটা আসলে কাউকে বলার জন্য করিনি। তবে আপনাদের মাধ্যমে অনেকেই জেনেছে। আমাকে সাধুবাদ জানাচ্ছে, এটা ভালো লাগছে।’

ধর্মীয় ভেদাভেদে বিশ্বাসী নয় আফতাব উদ্দিন। তার মতে, ‘আমি আমার ধর্ম পালন করি, তারা তাদের। এখানে মানবতাটাই বড় কথা।’

নোয়াখালীর কোম্পানিগঞ্জের ছেলে আফতাব চান কতিপয় পুলিশ সদস্যের জন্য পুরো বাহিনীকে যেন কখনো দোষারোপ করা না হয়। তিনি ভবিষ্যতেও দেশ ও সাধারণ মানুষের সেবায় কাজ করে যেতে চান।

মন্তব্য করুন

comments