X

টেকনাফে সাড়ে তিন কোটি টাকার ইয়াবা জব্দ; রোহিঙ্গা যুবক আটক

কক্সবাজারের টেকনাফে পৃথক অভিযান চালিয়ে প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা মূল্যের এক লাখ ১৪ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এবং ২৫২ ক্যান বিয়ার জব্দ করেছে বিজিবি ও কোস্টগার্ড। এ সময় ইয়াবা বহনে জড়িত থাকার অভিযোগে মো. সাদ্দাম হোসেন (২৬) নামে এক রোহিঙ্গা যুবককে আটক করে থানায় সোর্পদ করা হয়।

আটক সাদ্দাম হোসেন মিয়ানমারের মংডু প্রাণপ্রু এলাকার মৃত জামাল হোসেনের ছেলে।

বিজিবি জানায়, বৃহস্পতিবার ভোরে বিজিবি টেকনাফ বিওপির হাবিলদার মো. আশরাফুল আলমের নেতৃত্বে টহল দল মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি চালান আসার সংবাদে কেওড়া বাগান এলাকায় ওঁৎ পেতে থাকে। কিছুক্ষণ পর চারজন লোক একটি নৌকা নিয়ে কিনারায় ভিড়লে বেড়ি বাঁধে অবস্থানরত টহল দল তাদের থামতে বলা মাত্র তারা তিনজন ঝাঁপ দিয়ে কেওড়া বাগানের ভেতর দিয়ে পালিয়ে যায়। জোয়ানরা তাদের ফেলে যাওয়া নৌকা ও সেখানে থাকা একজনকে আটক করে। নৌকা থেকে ইয়াবার পুটলা উদ্ধার করে গুণে ৮৩ হাজার ৯৩০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট পাওয়া যায়। যার মূল্য প্রায় ২ কোটি ৫২ লাখ টাকা। আটক যুবকের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা করে জব্দকৃত ইয়াবা নৌকাসহ টেকনাফ মডেল থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

অপরদিকে একই দিন ভোররাতে টেকনাফ বিওপির সুবেদার ল্যান্স নায়েক জসিম উদ্দিনের নেতৃত্বে বিশেষ টহল দল ৪নং স্লুইচ গেইট এলাকায় যাওয়ার সময় এক লোককে ব্যাগ হাতে টেকনাফ বাজারের দিকে যেতে দেখে সন্দেহ হওয়ায় চ্যালেঞ্জ করে। লোকটি তার হাতে থাকা ব্যাগটি ফেলে অতিদ্রুত দৌঁড়ে টেকনাফ বাজারের দিকে পালিয়ে যাওয়ায় তাকে আটক করা সম্ভব হয়নি। পরবর্তীতে টহল দল ব্যাগটি উদ্ধার করে তল্লাশি করে ৩০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করে। যার আনুমানিক বাজার মূল্য ৯০ লাখ টাকা।

টেকনাফ-২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল এস এম আরিফুল ইসলাম তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, উদ্ধারকৃত ইয়াবাগুলো ব্যাটালিয়ন সদরে জমা রাখা হয়েছে। পরবর্তীতে সেগুলো ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে।

মন্তব্য করুন

comments