কুরবানীতে গরু না দেওয়ায় গৃহবধুকে হত্যার ঘটনায় ৭ জনকে আসামী করে মামলা

159
শেয়ার

ফেনীর কাজিরবাগে তানজিনা আক্তার ( ১৮) নামে এক গৃহবধূ হত্যার ঘটনায় ৭ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মঙ্গলবার নিহতের মা রাবেয়া আক্তার বাদী হয়ে নিহত তানজিনা আক্তারের শ্বশুর তরব আলী, শাশুড়ী হালিমা খাতুন ও দেবর জিয়া উদ্দিনসহ ৭ জনের নাম উল্লেখ করে এ মামলা দায়ের করেন।

নিহত তানজিনা সদরের কাজিরবাগ ইউনিয়নের মালিপুর গ্রামের বাসিন্ধা।

ফেনী মডেল থানার ওসি মো. রাশেদ খান চৌধুরী মামলা দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে সোমবার দুপুরে ফেনী সদর উপজেলার কাজিরবাগ ইউনিয়নের গিল্লাবাড়িয়া এলাকার ভূইয়া বাড়িতে যৌতুক হিসাবে কোরবানির গরু না দেয়ায় তানজিনা আক্তার (১৮) নামে এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে স্বামীর পরিবারের লোকজন। ঘটনার পর থেকেই নিহতর স্বামী পরিবারের সবাই পলাতক রয়েছে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে নিহতের স্বজন ও এলাকাবাসী ফেনী-ছাগলনাইয়া সড়ক অবরোধ করে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

নিহতের মা বিবি রাবেয়া জানান, গত এক বছর পূর্বে গৃহবধূ তানজিনার সাথে ধর্মপুর ইউনিয়নের তুরাব আলী ভূঞা বাড়ির তুরাব আলীর ছেলে প্রবাসী
হুমায়ুন কবিরের সাথে বিয়ে হয় । বিয়ের পর কাঠের ফার্নিসার , টিভি, প্রিজ ও যৌতুকের জন্য চাপ দিতো স্বামী হুমায়ুন , শাশুড়ী ও দেবর ননদেরা ।যৌতুক হিসাবে কোরবানি ঈদের সময় একটি গরুও দাবি করে স্বামীর পরিবারের লোকজন। তানজিনার মা বিবি রাবেয়া গরুর পরিবর্তে ২৫,০০০ টাকা প্রদান করে । এতে ক্ষিপ্ত হয়ে যায় শ্বশুর পক্ষ । এক পর্যায়ে বার বার তানজিনাকে মানসিকভাবে নির্যাতন করতে থাকে। ঈদের দিন তানজিনা তার মাকে এ ঘটনা জানান । ঈদের দ্বিতীয় দিন সোমবার দুপুরে তানজিনাকে শ্বাস রোধ করে হত্যা করে বাড়ির সবাই পালিয়ে যায়।

মন্তব্য করুন

comments