ভুল চিকিৎসায় মা সহ নবজাতকের মৃত্যু

70
শেয়ার

ফেনীতে একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় নবজাতক ও তার মায়ের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে।এ সময় মৃতের স্বজনরা হাসপাতালে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে।

আজ ২৪ আগস্ট বৃহস্পতিবার সকাল ৭টার দিকে ফেনী শহরের মিশন হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।মৃত মা মুক্তা আকতার (৩৫) ওমান প্রবাসী হারুনুর রশিদের স্ত্রী।মুক্তা আক্তারের তামিম নামে ৫ বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে।

ঘটনার পর হাসপাতালটি তালাবদ্ধ করে পালিয়ে যায় কর্তৃপক্ষ।পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এরপরে অভিযান চালিয়ে আটকে পড়া ১১ রোগীকে উদ্ধার করে অন্য হাসপাতালে পাঠান সিভিল সার্জন। পাশাপাশি হাসপাতালটির কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করে জেলা প্রশাসন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ভুল চিকিৎসায় নবজাতকসহ মায়ের মৃত্যুর অভিযোগে মৃতের স্বজনরা হাসপাতালে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

পুলিশ ও স্বজনরা জানান, ফুলগাজী উপজেলার বসিকপুর গ্রামের হারুনুর রশিদের স্ত্রী মুক্তা আক্তারকে গতরাত দেড়টার দিকে জেলা শহরের মিশন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। তাৎক্ষণিকভাবে কোনো চিকিৎসক না থাকায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ, নার্স ও আয়াদের মাধ্যমে চিকিৎসা চালায়।

মৃতের স্বজন কফিল উদ্দিন জানান, বুধবার রাত ৩টায় প্রসব বেদনা উঠলে মুক্তা আকতারকে মিশন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ সময় হাসপাতালে কোনো চিকিৎসক ছিলেন না। নার্সরা স্বাভাবিকভাবে বাচ্চা প্রসব করার চেষ্টা করলে মুক্তা মৃত বাচ্চা প্রসব করেন এবং তিনি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে তার রক্তক্ষরণ শুরু হলে তাকে সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

মিশন হাসপাতালের নির্বাহী পরিচালক মো. শাহাবুদ্দিন জানান, মুক্তা আকতারের চিকিৎসায় অবহেলা হয়নি। তিনি মৃত বাচ্চা প্রসব করে অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

সদর হাসপাতালে আরএমও অসীম কুমার জানান, মুক্তা আকতারকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। তার মৃত্যুর কারণ জানতে ময়না তদন্ত করা হবে।

মন্তব্য করুন

comments