স্কুলের ক্লাসরুমে গণধর্ষণের শিকার শিক্ষিকা

226
শেয়ার

স্কুলের ক্লাস রুমের স্বামীর সামনে এক শিক্ষিকা গণধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বরগুনা জেলার বেতাগীর একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকার ওপর এই পৈশাচিক অত্যাচার চালায় ছয়জনের একটি দল।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নিজ বিদ্যালয়ে গণধর্ষণের শিকার হন এই শিক্ষিকা। নির্যাতিতার পরিবারের পক্ষ থেকে বেতাগী থানায় অভিযোগ জানালেও ঘটনার দুদিন পরেও এখনো অধরাই রয়ে গেছে অভিযুক্তরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বেতাগীর প্রাথমিক বিদ্যালয় দুপুর আড়াইটায় ছুটির পর বারান্দায় এক সহকারী শিক্ষিকা তাঁর স্বামীর সঙ্গে কথা বলছিলেন।

তাদের কথা বলতে দেখে স্থানীয় কিছু যুবক জড়ো হয়। তারা স্কুলের মধ্যে প্রবেশ করার চেষ্টা করলে শিক্ষিকা বাধা দেয়। দরজা ভেঙে ৬-৭ যুবক ভিতরে ঢুকে শিক্ষিকার স্বামীকে মারধর করে পরিচয় জানতে চায়। শিক্ষিকার স্বামীর পরিচয় জেনে তারা একটি ক্লাসে আটকে রাখে।

উল্লেখ্য,শিক্ষিকার স্বামী ভারতীয় নাগরিক। সে পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দী গ্রাম থানা এলাকার বাসিন্দা।

ঘটনার পর শিক্ষিকা স্বামীকে নিয়ে বেতাগী থানায় ছয়জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা দায়ের করেন।

অভিযুক্তরা হল হোসনাবাদ ইউনিয়নের কদমতলা গ্রামের সুমন বিশ্বাস, রাসেল, সুমন কাজী, রবিউল, হাসান ও জুয়েল । বরগুনা পুলিশ সুপার বিজয় বসাক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সংবাদমাধ্যমকে জানান, পুলিশি তদন্ত শুরু করেছে।

থানা অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে। শিক্ষিকাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ খুব তাড়াতাড়ি দোষীদের গ্রেপ্তার করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

মন্তব্য করুন

comments