চিনের লেকে অত্যাশ্চর্য ঘটনা, দুইদিকে পানির দুই রঙ

54
শেয়ার

চিনের ইউংচাং সাগরকে সেদেশের মৃত সাগর বলেই জানা যায়। এই সাগর নিয়ে দেশ- বিদেশের পর্যটকদের এমনিতেই উৎসাহের অন্ত নেই। কিন্তু ইদানিং এই সুবিশাল হৃদের আকর্ষণ আরও বেড়ে গিয়েছে। কারণ ১২০ বর্গ কিমি এলাকাজুড়ে এই হৃদের একদিকে গোলাপি আরেক দিক গাঢ় সবুজ। আর এই অপরূপ সৌন্দর্য দেখতে এখন দেশ-বিদেশ থেকে ভিড় জমাচ্ছেন পর্যটকরা।

তবে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, কোনও অলৌকিক কিছু নয়, একেবারেই প্রাকৃতিক কারণে ইউংচাং লেকের এই রঙ পরিবর্তন। চিনের এই হৃদটি বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম সোডিয়াম সালফেটযুক্ত লেক। ডুনালিয়েলা স্যালাইভা নামে একধরনের জলজ উদ্ভিদ রয়েছে এই হৃদে। সেই মাইক্রোস্কোপিক প্রাণী রং পরিবর্তন করার ফলেই ইউংচাং লেকের একদিক গোলাপি হয়ে গিয়েছে বলে জানাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। পানির দুরকম রঙ কয়েক বছর ধরেই দেখা যাবে। তবে শীতকালে পানি শুকিয়ে গেলে এই রং আর দেখা যাবে না। গত বছরও এই ইউংচং লেকের পানি লাল হয়ে যাওয়ায় ফের শিরোনামে উঠে এসেছিল এই হৃদটি। সেসময়েও প্রচুর পর্যটক সেখানে ভিড় জমিয়েছিলেন। নোনা জলের এই হৃদে লবনের পরিমাণ প্রায় জর্ডানের মৃতসাগরের সমান। ৫ কোটি বছর পুরনো এই হৃদে গত ৪০০০ বছর ধরে লবন উৎপাদন হচ্ছে। আজও চিনের শিল্পক্ষেত্রের জন্য এই হৃদ থেকেই লবন সরবরাহ হয়।

মন্তব্য করুন

comments