রাখাইনে রেডক্রসের ত্রাণবহরে পেট্রলবোমা নিক্ষেপ রোহিঙ্গা বিরোধীদের

29
শেয়ার

রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের জন্য রেডক্রসের ত্রাণ সরবরাহ ঠেকাতে পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করেছে মিয়ানমারের রোহিঙ্গাবিরোধী বিক্ষোভকারীরা। পরে পুলিশ ফাঁকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।এসময় পুলিশের গুলিতে আহত হয় ছত্রভঙ্গ বিক্ষোভকারী বিদ্রোহীরা।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, গতকাল বুধবার রাতে রাখাইনের রাজধানী সিতেতে রেডক্রসের কর্মীরা বিভিন্ন ত্রাণসামগ্রী নৌকায় তুলে রোহিঙ্গাদের জন্য নিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি চালাছিল। এ সময় রোহিঙ্গাবিরোধী শত শত বিক্ষোভকারী সেখানে হাজির হয়ে ত্রাণকর্মীদের বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেন। তাদের কারও কারও হাতে লাঠি ও রড ছিল।এক পর্যায়ে পেট্রলবোমাও নিক্ষেপ করেন বিক্ষোভকারীরা।

রাখাইন রাজ্যের সচিব টিন মং সুই বলেন, ‘বিক্ষোভকারীরা ভেবেছিল এই ত্রাণ শুধু ‘বাঙালি’দের জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।’

মিয়ানমারের সরকারি দপ্তর থেকে জানানো হয়, খবর পেয়ে সেখানে অন্তত ২০০ পুলিশ সদস্য হাজির হন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে তাঁরা ফাঁকা গুলি ছোড়েন। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করে দেওয়ার সময় অন্তত আটজন আহত হন। এ ঘটনায় ত্রাণকর্মী কেউ আহত হননি বলে নিশ্চিত করেন রেডক্রসের একজন মুখপাত্র মারিয়া সিসিলিয়া গুইন।

প্রাণভয়ে সোয়া চার লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছে। রাখাইনে কিছু রোহিঙ্গা এখনো থাকলেও তারা খাদ্যসংকটে পড়েছে। প্রাণভয়ে বাইরে বের হচ্ছে না। এই পরিস্থিতিতে সেখানে ত্রাণ সরবরাহের উদ্যোগ নেয় রেডক্রস।

মন্তব্য করুন

comments