X

নওয়াজ শরিফের আসনে স্ত্রী কুলসুমের জয়

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের শূন্য আসনে অনুষ্ঠিত উপনির্বাচনের বেসরকারি ফলাফলে জয় পেয়েছেন তার স্ত্রী কুলসুম নওয়াজ। পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম ডন জানিয়েছে, কুলসুম ৬১,২৫৪টি ভোট পেয়েছে। আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ইয়াসমীন রশিদ পেয়েছেন ৪৭,০৬৬টি ভোট।

রবিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) ২২০টি কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন ভোটাররা। এরমধ্যে ১০৩টি পুরুষ ভোটারদের জন্য,৯৮টি নারী ভোটারের জন্য এবং ১৯টি কেন্দ্র ব্যবহার করা হচ্ছে নারী-পুরুষ যৌথভাবে ভোট দেওয়ার জন্য। ডন জানিয়েছে, এ আসনের ভোটার সংখ্যা ৩,২১,৭৮৬। পাকিস্তানের ইতিহাসে এবারই প্রথমবারের মতো বায়োমেট্রিক ভোটার ভেরিফিকেশন মেশিন ব্যবহার করা হয়। ৩০ হাজারের মতো ভোটার বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে ভোট দেওয়ার সুযোগ পান। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর সদস্যরা এ ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া তত্ত্বাবধান করে।

উল্লেখ্য, ৩ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে দুনিয়ার প্রভাবশালী রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান এবং রাঘববোয়ালদের আর্থিক কেলেঙ্কারির তথ্য ফাঁস করে সাড়া ফেলে দেয় আলোচিত ‘পানামা পেপারস’। ফাঁস হওয়া ওই গোপন নথিতে অর্থ পাচারে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের ছেলের নাম উঠে আসায় নিজ দেশে চাপের মুখে পড়েন তিনি। বিরোধী দলগুলো থেকে তার পদত্যাগ দাবি করা হয়। ২০১৬ সালের ১ নভেম্বর নওয়াজ শরিফ ও তার পরিবারের সদস্যদের বিদেশে অবৈধ বিনিয়োগের অভিযোগ তদন্তে একটি তদন্ত কমিশন গঠন করে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। পানামা পেপারস প্রকাশের পর বিরোধী দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই), জামায়াতে ইসলামিসহ কয়েকটি রাজনৈতিক দলের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এ সিদ্ধান্ত দেয় আদালত।
গত ২৮ জুলাই পানামা পেপারস কেলেঙ্কারি মামলায় অভিযুক্ত হয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়ে প্রধানমন্ত্রী পদে অযোগ্য ঘোষিত হওয়ার পর পদত্যাগ করেন নওয়াজ শরিফ। এরপর তার আসনটি শূন্য হয়। এর আগে ক্ষমতাসীন পিএমএলএনের প্রার্থী হিসেবে নওয়াজের ভাই পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী শাহবাজ শরিফের এ আসনে নির্বাচন করার কথা ছিল। পরে শাহবাজ নিজেই জানান, বেগম কুলসুম নওয়াজই নির্বাচন করবেন।

মন্তব্য করুন

comments