অং সুচির নিন্দা জ্ঞাপনের অপেক্ষায় আছি-মালালা

32
শেয়ার

শান্তিতে নোবেল পুরস্কারপ্রাপ্ত পাকিস্তানি তরুণী মালালা ইউসুফযায়ি এক বিবৃতি মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর নির্যাতনের তীব্র নিন্দা জানিয়ে তার নিজের দেশ পাকিস্তানকে বাংলাদেশের দৃষ্টান্ত অনুসরণ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, ‘আমার দেশ পাকিস্তানসহ বাকি দেশগুলোর বাংলাদেশকে অনুসরণ করা উচিত। তিনি পাকিস্তানসহ অন্যান্য দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘যে সমস্ত রোহিঙ্গারা সহিংসতা ও আতঙ্কে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন তাদের খাবার, বাসস্থান ও শিক্ষার সুযোগ দেয়া উচিত।’

রোববার, ৩ সেপ্টেম্বর এক টুইট বার্তায় তিনি এ আহ্বান জানান। মালালা তার টুইট বার্তায় লিখেছেন, ‘আমি যতবারই রোহিঙ্গাদের করুণ ও নির্মম নির্যাতনের খবর দেখি ততবারই আমার হৃদয় কেঁদে ওঠে।’

টুইটির প্রধম পয়েন্টে মালালা লিখেছেন, ‘নিপীড়ন বন্ধ করুন। মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী যেভাবে শিশুদের হত্যা করছে, সে চিত্র আমরা দেখেছি। এই শিশুরা কাউকে আক্রমণ করেনি। অথচ তাদের বাড়ি-ঘর পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে।’

দ্বিতীয় পয়েন্টে লিখেছেন, ‘যদি এই মানুষগুলোর বাড়ি মিয়ানমারে না হতো তাহলে তারা কিভাবে প্রজন্মের পর প্রজন্ম সেখানে বসবাস করে এসেছে? রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারের নাগরিকত্ব দেয়া উচিত, যেখানে তারা জন্মগ্রহণ করেছে।’

মালালা তার তৃতীয় পয়েন্ট লিখেছেন, ‘আমার দেশ পাকিস্তানসহ বাকি দেশগুলোর বাংলাদেশকে অনুসরণ করা উচিত এবং যে সমস্ত রোহিঙ্গারা সহিংসতা ও আতঙ্কে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন তাদের খাবার, বাসস্থান ও শিক্ষার সুযোগ দেয়া উচিত।’

সবশেষে তিনি লেখেন, ‘গত কয়েক বছর ধরে আমি এই বর্বরতার বিরুদ্ধে নিন্দা জানিয়ে আসছি। আমি এখনো অপেক্ষা করছি, রোহিঙ্গাদের সাথে এই ‘লজ্জাজনক আচরণ’এর ঘটনায় নোবেল জয়ী অং সাং সুচি নিন্দা জানাবেন। বিশ্ব এবং রোহিঙ্গা মুসলিম তার পদক্ষেপের জন্য অপেক্ষা করছেন।’

গত দশ দিনে প্রায় ৯০,০০০ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। গত বছর অক্টোবর মাসে মিয়ানমার সামরিক বাহিনীর অভিযানের মুখে ৭০,০০০ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসে।বাংলাদেশ সরকারের হিসেব অনুযায়ী আরো অন্তত তিন লক্ষ রোহিঙ্গা বাংলাদেশের কক্সবাজার অঞ্চলে সরকারি অনুমোদন ছাড়া বসবাস করছে।

 

মন্তব্য করুন

comments