পবিত্র হজ্জ আজ

52
শেয়ার

পবিত্র হজ্জ আজ। ‘লাব্বাইক, আল্লাহুমা লাব্বাইক, লাব্বাইকা লা শারিকা লাকা লাব্বাইক, ইন্নাল হামদা ওয়ান্নি’ মাতা লাকা ওয়ালমুল্ক।’ এই ধ্বনিতে আজ (বৃহস্পতিবার) মুখর হবে আরাফাতের ময়দান। হজ্জ পালনে এবার বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের ২০ লাখের বেশি মুসল্লি সমবেত হয়েছে সৌদি আরবে।

পবিত্র হজ্জ পালনে মুসল্লিরা মঙ্গলবার রাত থেকে মিনায় পৌঁছাতে শুরু করেন। বুধবার সারাদিন তারা মিনায় অবস্থান করেন।

মিনা, যেটি তাবুর শহর বলেও পরিচিত।মিনা হল সৌদি আরবের মক্কা প্রদেশের অন্তর্ভুক্ত মক্কা শহরের পার্শ্ববর্তী এলাকা। মক্কা থেকে এর দূরত্ব ৫ কিমি এবং এটি মক্কা থেকে আরাফাতের দিকে যাওয়ার সড়কের পাশে অবস্থিত। এর আয়তন প্রায় ২০ বর্গকিমি। হজ্জের অংশ হিসেবে মিনায় অবস্থান করতে হয় বলে মিনা অধিক পরিচিত। লক্ষাধিকের বেশি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত তাবুতে হাজিদের সাময়িক অবস্থানের ব্যবস্থা করা হয়। শয়তানের প্রতীক স্তম্ভে পাথর নিক্ষেপ করার হজ্জের রীতি মিনায় সম্পাদন করা হয়।

ফজরের নামাজের পর মিনা থেকে হাজিরা যাবেন আরাফাতের ময়দানে।বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশে আরাফাতের ময়দানে অবস্থানের দৃশ্য টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে।বৃহস্পতিবার ফজরের নামাজ আদায় করে তারা রওনা হবেন আরাফাতের ময়দানের উদ্দেশে।সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত সারাদিন তারা আরাফাতের ময়দানে থাকবেন।এই আরাফাতের ময়দানেই মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) বিদায় হজ্জের ভাষণ দিয়েছিলেন।সেখানে সাদা ইহরাম বাঁধা অবস্থায় সারাদিন আল্লাহর ইবাদতে মগ্ন থাকবেন। হজ্জের খুতবা শুনবেন এবং এক আজানে জোহর ও আসরের নামাজ আদায় করবেন মুসল্লিরা। সেখানে হজ্জের মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে।

সারাদিন আরাফাতে অবস্থান করে হাজিরা আরাফাত থেকে রাতে মুজদালিফায় অবস্থান করবেন।মুজদালিফায় পৌঁছে আবারও এক আজানে আদায় করবেন মাগরিব ও এশার নামাজ।মুজদালিফায় খোলা আকাশের নিচে রাত যাপন করবেন তারা।শয়তানকে পাথর মারার উদ্দেশ্যে তারা আবার আসবেন ত্যাগ আর তাবুর শহর মিনায়।

হজ্জের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছে সৌদি আরব সরকার। নিয়োগ করা হয়েছে ১ লাখ ২৮ হাজার নিরাপত্তাকর্মী। এবার বাংলাদেশ থেকে ১ লাখ ২৭ হাজারের বেশি মুসল্লি হজ্জ পালন করতে গেছেন।

মন্তব্য করুন

comments