সোমবার পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহন

143
শেয়ার

পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণের অপেক্ষায় এখন যুক্তরাষ্ট্রবাসী। মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা-নাসা ছাড়াও বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে গ্রহণ দেখার ব্যবস্থা করা হয়েছে, দলবেঁধে মানুষজন দেখবেন প্রবল পরাক্রমশালী সূর্যকে গ্রাস করে ফেলার দৃশ্য।

সোমবার (২১ আগস্ট) সেই দিন। নাসা বলছে, ৯৯ বছর পর আমেরিকায় পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ দৃশ্যমান হচ্ছে। এটি কানাডাসহ পশ্চিম ইউরোপ, উত্তর/পূর্ব এশিয়া, উত্তর/পশ্চিম আফ্রিকার বিভিন্ন দেশেও দেখা দেবে।

সূর্যগ্রহণে চাঁদ সূর্যকে সম্পূর্ণ ঢেকে ফেলতে পারে, ফলে কোনো স্থানে তখন হয় পূর্ণ সূর্যগ্রহণ। এতে সূর্য পুরো ঢাকা পড়ে বলে সৌরমুকুট দেখা যায়। সেসময় তাপমাত্রা কমে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। কিছুক্ষণের জন্য সন্ধ্যার আঁধার নেমে আসে আকাশে।

পরীক্ষা-নিরীক্ষায় দেখা গেছে, চন্দ্রগ্রহণের চেয়ে সূর্যগ্রহণ বেশিবার হয়। প্রতি সাতটি গ্রহণের মধ্যে সূর্যগ্রহণ ও চন্দ্রগ্রহণের অনুপাত ৫:২ বা ৪:৩। তবে অধিকাংশ সূর্যগ্রহণ সমুদ্রপৃষ্ঠে বা পর্বতমালার ওপর দিয়ে গেলে নজড়ে পড়ে না।

সূর্যগ্রহণকালে বেলুন ভরে আকাশে ব্যাকটেরিয়া পাঠাবে নাসা

এবার বৈজ্ঞানিক গবেষণার একটি অংশ হিসেবে সূর্যগ্রহণের দিন বেলুনে করে ব্যাকটেরিয়া পাঠাতে যাচ্ছে নাসা। যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে নাসার একটি টিম শতাধিক বেলুন ছাড়বে। এই বেলুনগুলোর সঙ্গে যুক্ত করা থাকবে ক্যামেরা ও ট্র্যাকার। কয়েকটির সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হবে মানুষের জন্য ক্ষতিকর কিছু ব্যাকটেরিয়ার নমুনা।

যুক্তরাষ্ট্রে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৩টার মধ্যে এটি দেখা যাবে। কানাডায় দেখা যাবে দুপুর ১টা ১০ থেকে ৩টা ৪৯-এর মধ্যে।

১৯১৮ সালের ৮ জুন শেষবার পূর্ণ সূর্যগ্রহণ দেখে যুক্তরাষ্ট্রবাসী। এছাড়া সাম্প্রতিক সময়ে ২০১৬ সালের ৯ মার্চ পূর্ণ সূর্যগ্রহণ দেখা যায় বাংলাদেশসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায়।

সতর্কতা
খালি চোখে সূর্যগ্রহণ দেখতে নিষেধ করেছেন জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা। কোনো এক্সরে প্লেট নিয়ে বা বিশেষ চশমা পরে সূর্যগ্রহণ দেখতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য করুন

comments