উত্তর কোরিয়া-যুক্তরাষ্ট্র বাগযুদ্ধ; বাড়ছে উত্তেজনা

47
শেয়ার
ছবিঃ সংগৃহিত

আন্তর্জাতিক মহলে উত্তাপ ছড়িয়ে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত উত্তর কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র। চলছে পাল্টাপাল্টি হুমকি। সাম্প্রতিক এই উত্তেজনার প্রেক্ষিতে বিভিন্ন দেশ তাদের প্রতিক্রিয়াও দেখাতে শুরু করেছে৷

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডেনাল্ড ট্রাম্প উত্তর কোরিয়াকে সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের নিজস্ব অঞ্চলে কিছু হলে উত্তর কোরিয়াকে ‘কঠিন, কঠিন ঝুঁকিতে’ পড়তে হবে। পাশাপাশি, নিজের দেশের মানুষকে তার দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ‘সর্বোচ্চ নিরাপদ স্থান’ বলে আশ্বস্ত করেছেন।

আর উত্তর কোরিয়ার হুমকি, তারা প্রশান্ত মহাসাগরে মার্কিন দ্বীপ গুয়ামে হামলা চালাবে, যেখানে প্রায় ১ লাখ ৬৩ হাজার মানুষ বসবাস করে।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে চলতে থাকা ঠান্ডা সম্পর্ক নিয়ে উদ্বিগ্ন বিশ্বনেতারা। এ ব্যাপারে দেশ দু’টিকে সতর্ক করেছে রাশিয়া, চীন ও জার্মানি। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ নিয়ে এখনই ততটা আতঙ্কিত হওয়ার দরকার নেই।

এদিকে চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র গেং শুয়াং দু’দেশকে শক্তি প্রদর্শন না করে উত্তেজনা কমানোর পথে হাঁটার আহ্বান জানিয়েছেন। তার মতে, দু’পক্ষেরই এ ধরনের হুমকি দেয়া বন্ধ করা উচিত। গেং শুয়াং বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার আন্তর্জাতিক যুদ্ধের বিষয়ে বড় রকমের উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। এই অবস্থায় আমরা সব পক্ষকে তাদের ভাষা ব্যবহার ও কর্মকাণ্ড সম্পর্কে আরও সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

আর রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ জানান, উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে ওয়াশিংটন ও পিয়ংইয়ংয়ের মধ্যে উত্তেজনা চরমে পৌঁছেছে। তবে শেষ পর্যন্ত দু’পক্ষের সাধারণ জ্ঞানেরই বিজয় হবে বলে মস্কো আশা করে।

জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল বলছেন, তিনি মনে করেন যে তীব্র কথার লড়াই চলছে সেটি তার দৃষ্টিতে ভুল জবাব।

কোনো কোনো বিশ্লেষকের মতে, এরকম উত্তেজক পরিস্থিতিতে কোনো ভুল বোঝাবুঝি থেকেও একটি যুদ্ধ বেধে যেতে পারে। কূটনীতিকরা আশা করছেন, রাশিয়া আর চীনের সহায়তায় উত্তর কোরিয়াকে আলোচনার টেবিলে আনা যাবে।

মন্তব্য করুন

comments