X

আসুন জেনে নিই কিভাবে বন্ধ করবেন বিজ্ঞাপনি এসএমএস

মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর বিভিন্ন অফার ও প্রতিষ্ঠানের চটকদার এসএমএস রীতিমতো যন্ত্রণায় পরিণত হয়েছে। অনাকাঙ্ক্ষিত এসব এসএমএসের ভিড়ে অনেক সময় প্রয়োজনীয় এসএমএস হারিয়ে যায়।

যদিও মোবাইল গ্রাহকদের এসব এসএমএস যন্ত্রনা থেকে মুক্তি দেওয়ার জন্য নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি একটি নির্দেশনা জারি করে। তারপরও বন্ধ হয়নি মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর বিভিন্ন অফারের এসএমএস পাঠানো।

বিটিআরসির ঐ নির্দেশনাতে গ্রাহকের স্বার্থ সুরক্ষার কথা বলা হয়েছে। তারপরও অহেতুক এসএমএস-এর কারণে মোবাইল ফোন হয়ে উঠেছে যন্ত্রণাদায়ক। গুরুত্বপূর্ণকোন কাজের মাঝখানে, মাঝরাতে ঘুমের সময় বা ভোরে হঠাৎ করে বেজে এসএমএসের আওয়াজে গ্রাহকের বিরক্তি উদ্রেকের জন্য যথেষ্ট।

তাহলে কিভাবে বন্ধ করবেন এই যন্ত্রনা

বিটিআরসি জানিয়েছে, তাদের কাছে অভিযোগ করলেই মিলবে প্রতিকার। এছাড়া সংশ্লিষ্ট মোবাইল ফোন অপারেটরের শর্টকোড নম্বরে এসএমএস পাঠিয়েও এ যন্ত্রণা থেকে রেহাই পাওয়া যায়।

বিটিআরসির ওয়েবসাইটে ই-মেইল ঠিকানা দেওয়া আছে, অভিযোগ বক্স রয়েছে। কেউ চাইলেই অভিযোগ করতে পারে। এছাড়া, বিটিআরসির ওয়েবসাইটের (http://www.btrc.gov.bd/complainbox) এই লিংকে গিয়ে অভিযোগ জানানো যাবে।

যন্ত্রণাকর এসব এসএমএস আসা বন্ধ করতে চাইলে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারী নিজেই সংশ্লিষ্ট অপারেটরের নির্দিষ্ট নম্বরে এসএমএস পাঠিয়ে বা ফোন করে ওইসব এসএমএস আসা বন্ধ করতে পারবেন।

গ্রামীণফোনঃ
গ্রামীণফোনের কোনও গ্রাহক এসব এসএমএস পেতে না চাইলে তিনি তা ১২১ নম্বরে ফোন করে বন্ধের জন্য অনুরোধ জানাতে পারবেন। অনুরোধ জানালে গ্রামীণফোন এসব বন্ধ করে দেয়।

রবিঃ
রবির গ্রাহকরা ১২৩ নম্বরে ফোন দিয়ে ডিএনডি (ডু নট ডিস্টার্ব) সেবা চালুর জন্য অনুরোধ করতে পারবেন। ফোন করে বলতে হবে, ‘আমি এই সেবা চাই না।’ তাহলে ওরা (মোবাইলের অপর প্রান্ত থেকে) সংশ্লিষ্ট ফোনদাতাকে ডিএনডি ক্যাটাগরিতে ফেলে দেবে। তখন প্রমোশনাল কোনও কিছু আর মোবাইলে আসবে না।

বাংলালিংকঃ
বাংলালিংকের গ্রাহকরা এসএমএস না চাইলে মেসেজ অপশনে গিয়ে অফ (OFF) লিখে ৬১২১ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে পারবেন।

এয়ারটেলঃ
এয়ারটেল গ্রাহকরা ১২৩ নম্বরে ফোন দিয়ে ডিএনডি (ডু নট ডিস্টার্ব) সেবা চালুর জন্য অনুরোধ করতে পারবেন। সেবা চালু হলে বন্ধ হবে অনাকাঙ্ক্ষিত এসএমএস আসা।

এসব অনাকাঙ্ক্ষিত এসএমএস পেয়ে যদি কেউ ক্ষুব্ধ হন তাহলে প্রতিকারের জন্য তিনি কমিশনের চেয়ারম্যান বা সচিব বরাবর লিখিত অভিযোগ করতে পারেন। কেউ অভিযোগ পাঠালে কমিশনের ‍যে ‘কমপ্লেইন ম্যানেজমেন্ট টিম’ আছে তারা তা যাচাই-বাছাই করে গ্রাহকের পক্ষে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করে থাকেন।। এতে অপারেটর দায়ী হলে আইনি পদক্ষেপও গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য করুন

comments