বরাবরের মত এবারেও অনলাইনে গরুর হাট

50
শেয়ার

গত বেশ কয়েক বছর ধরেই অনলাইনে কোরবানির পশু কেনাবেচার প্রচলন শুরু হয়েছে। হাটে গিয়ে দরদাম করে পশু কেনার ঝামেলা এড়াতে অনেকেই অনলাইনে পশু কেনার দিকে ঝুঁকেছেন।

সংশ্লিষ্টরা জানান, অনলাইনভিত্তিক কোরবানির পশু বিক্রির বিষয়টি এরই মধ্যে বেশ সাড়া ফেলেছে। প্রবাসীদের কাছে এসব বাজার যেমন জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে, তেমনি রাজধানীর মানুষের কাছেও বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে অনলাইনভিত্তিক এসব বাজার।

বিভিন্ন অনলাইন ক্লাসিফাইড সাইট ও ই-কমার্সের পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের বিভিন্ন পেজ ও গ্রুপে চলছে কোরবানির পশু বিক্রি। উত্তরবঙ্গে বন্যার কারণে এবার গৃহস্থদের কাছ থেকে গরু কম পাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন অনলাইন মার্কেটপ্লেস সংশ্লিষ্টরা। তবে অনলাইনে কোরবানির পশুর হাট জমজমাট করতে প্রস্তুতির কমতি নেই তাদের।

কোরবানির পশু পাওয়া যাচ্ছে, অনলাইন মার্কেটপ্লেস বিক্রয় ডট কম, আমার দেশ ই-শপ, বেঙ্গল মিট ও সাশ্রয় এগ্রো প্রভৃতি সাইটে। এসব সাইটের পাশপাশি বিভিন্ন ফেসবুক পেজ ও গ্রুপে পাওয়া যাচ্ছে কোরবানির পশু। অনলাইনে গরুর হাট, গাবতলী গরুর হাট, নয়াবাজারের গরুর হাট, গাবতলী কাউ ক্যাটেল মার্কেট, ঢাকা গরুর হাট, আফতাব নগর গরুর হাটসহ আরও অনেক ফেসবুক পেজের মাধ্যমে গরু-ছাগল বিক্রি করা হচ্ছে।

এসব ওয়েবসাইটে শুধু পশুর ছবিই নয়, ক্রেতাদের সুবিধার জন্য পশুর বয়স, দাঁতের সংখ্যা, ওজন, চামড়ার রং, জাত, জন্মস্থান এবং প্রাপ্তিস্থানও দেয়া থাকে পোস্টে। ক্রেতারা চাইলে স্বচক্ষে পশু দেখতে যেতে পারেন। আর ছবি দেখই ক্রয় করতে চাইলে বিক্রেতা সেই পশু পৌঁছে দেবেন তার বাসায়।

অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলো থেকে কোরবানির পশু ক্রেতাদের বাসায় পৌঁছে দিয়ে আসা হয়। আবার কিছু ওয়েবসাইট ক্রেতাদের সরাসরি গরু খামারিদের সঙ্গে যোগাযোগ করিয়ে দেন। ফলে ক্রেতারা কৃষকদের কাছ থেকেও গরু কেনারও সুযোগ পান।

আমার দেশ ই-শপের প্রধান নির্বাহী আতাউর রহমান বলেন, আমরা সরাসরি গৃহস্থদের কাছ থেকে গরু নিয়ে থাকি। কিন্তু এবার উত্তরবঙ্গে ব্যাপক বন্যার কারণে কৃষকদের কাছ থেকে গরু কম পাচ্ছি। ফলে গরু সরবরাহ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এছাড়া রাস্তায় যানজটের কারণে আমরা সঠিক সময়ে ঢাকার বাইরে থেকে গরু আনতে পারছি না। এ পর্যন্ত ২২টি গরুর অর্ডার পেয়েছি।

বিক্রয় ডটকমের পরিচালক (বিপণন) ইয়াসের নূর বলেন, আমরা ইতোমধ্যে ভালো মানের পশু আমাদের সাইটে আপ করেছি। তবে ক্রেতারা এখনো গরু কেনা শুরু করেননি। তারা বিভিন্ন গরুর দামের খোঁজখবর নিচ্ছেন। শেষে মুহূর্তের জন্য অপেক্ষা করছেন তারা।

অনলাইনে গরু কেনা থেকে শুরু করে তা কোরবানি করে মেশিনে গোশত কেটেছেঁটে তৈরি অবস্থায় বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছে বেঙ্গল মিট। তবে সেক্ষেত্রে সময় নেয়া হয় তিনদিন। এজন্য গরুর দাম অনুযায়ী সার্ভিস চার্জ নেয়া হয় ১৫-১৯ হাজার টাকা। আর শুধু কোরবানির পশু কিনলে পৌঁছে দেয়ার খরচ হিসেবে ডেলিভারি চার্জ হিসেবে প্রতিষ্ঠানটি নিচ্ছে ৪ হাজার টাকা।

মন্তব্য করুন

comments