কমিশনের লোভে রোগীদের অপ্রয়োজনীয় টেস্ট (ভিডিও)

152
শেয়ার

সব কিছুতেই রন্ধ্রে রন্ধ্রে বাণিজ্য ঢুুকে গেছে। বিপদে পড়ে অসুস্থ হয়ে চিকিৎসার জন্য ছুটে আসা সাধারণ মানুষ এর শিকার। খামের বিনিময়ে বা অন্য সুবিধার বিনিময়ে কিছু ডাক্তার অনেক নিম্নমানের ওষুধ অনুমোদন করে এর কোম্পানিগুলোকে সুবিধা দিয়ে থাকেন।

মানুষের জীবন বাঁচানোই যাদের কাজ তাদের অনেকেই সেই সেবাকে পুঁজি করে অবৈধভাবে আয় করছেন কোটি কোটি টাকা। সেবা দেয়ার নামে অনেক চিকিৎসকই রোগীদের দিচ্ছেন অপ্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা। বিনিময়ে পাচ্ছেন মোটা অংকের কমিশন। ফলে রোগীদের চিকিৎসার জন্য ব্যয় করতে হচ্ছে প্রয়োজনের তুলনায় কয়েকগুণ বেশি অর্থ। বিষয়টি সম্পর্কে অবগত থাকলেও এ সমস্যার কোনোই সমাধান না পেয়ে অসহায়ত্ব প্রকাশ করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

কমিশনের বাড়তি টাকা আয় করতে ডাক্তার প্রেসক্রিপশনে যে অপ্রয়োজনীয় পরীক্ষা লিখে দিচ্ছেন সেটা জানারও সুযোগ নেই চিকিৎসা সেবা নিতে আসা রোগীদের।

যত টেস্ট তত টাকা- এই কমিশন বাণিজ্যের মধ্য দিয়েই ডাক্তাররা অবৈধভাবে আয় করে চলেছেন কোটি কোটি টাকা। রাজধানীর ছোট বড় বেশ কয়েকটি ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ল্যাব ও হাসপাতালে চলে সময় সংবাদের অনুসন্ধান। ক্যামেরার সামনে কেউ কথা বলতে রাজি না হলেও গোপন ক্যামেরায় ধরা পড়ল একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টার কর্তৃপক্ষের স্বীকারোক্তি।

কমিশন বাণিজ্যের ব্যাপারটি অকপটে স্বীকার করলেন চিকিৎসকদের সংগঠন। আর নৈতিকতার জায়গা থেকে চিকিৎসকদের এই প্রবণতা থেকে বেরিয়ে আসা উচিৎ বলে মত বিশেষজ্ঞদের। সমাধান কোথায়? এই প্রশ্নের উত্তর নেই কারো কাছেই। আইনিভাবে এর সমধান কঠিন হওয়ায় অসহায়ত্ব প্রকাশ করলেন খোদ স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

ভুক্তভোগীরা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কাছে আবেদন করেছেন প্রতিটি পরীক্ষার জন্য একটি ক্লিনিক বা ডায়াগনস্টিক সেন্টার সর্বোচ্চ মূল্য হিসেবে কত টাকা নিতে পারবে, তা নির্ধারিত করে দেওয়া হোক।

সূত্রঃ সময় টিভি

মন্তব্য করুন

comments