X

ক্লিভেজ বিতর্কে প্রিয়াংকা চোপড়া

‘সিকিম বিদ্রোহ অধ্যুষিত রাজ্য’- এমন কথা বলে ভীষণ বিতর্কের জন্ম দিয়েছিলেন তিনি। আর এবার এর চেয়েও বড় বিতর্কের জন্ম হলো।

বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া এবার একটি ট্যুরিজম ক্যালেন্ডারে তাঁর ‘বক্ষবিভাজিকা’ বা ‘ক্লিভেজ’ প্রদর্শন করে আলোচিত-সমালোচিত ও বিতর্কিত হলেন।
আসাম ট্যুরিজম-এর ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর তিনি। আর তাঁরই কি-না এমন কাণ্ড। সম্প্রতি প্রকাশিত একটি ক্যালেন্ডারে প্রিয়াঙ্কার এক্সক্লুসিভ ছবি দেওয়া হয়েছে। আর তাতেই হয়েছে মাঠ গরম। বিষয়টি নিয়ে আলোচনা রীতিমতো সংসদ পর্যন্ত গড়িয়েছে।

‘যৎসামান্য কাপড়’ পরে আসাম সংস্কৃতির ‘বদনাম’ করেছেন প্রিয়াঙ্কা- এমন অভিযোগ তুলে সংসদ নন্দিতা দাস ও রূপজ্যোতি কুর্মি বলেন, অসমীয় সমাজের প্রতি সম্মান দেখানো সরকারের দায়িত্ব। ‘ফ্রক’ কোনো অসমীয় পোশাক নয় এবং ক্যালেন্ডারের ছবিগুলোও খুব একটা রুচিশীল নয়। আমাদের সম্মান রক্ষার দায়িত্ব নিশ্চয়ই সরকারের ওপরই বর্তায়। ওই ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডরের কোনো ঐতিহ্যবাহী পোশাক পরা উচিত ছিল। আর তাই আমরা এই ক্যালেন্ডারটির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করছি। সেই সাথে তাঁরা ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর-এর পদ থেকে প্রিয়াঙ্কার অপসারণও দাবি করেন।

সাংসদরা আরো বলেন, আসামে অনেক জনপ্রিয় ও আলোচিত অভিনয়শল্পিী আছেন। তাঁদের কাউকে দিয়েও ক্যালেন্ডারটি করা যেত। তবে, ক্যালেন্ডারে দোষের কিছু দেখছেন না আসাম পর্যটন উন্নয়ন করপোরেশন (এটিডিসি)। এটিডিসি চেয়ারম্যান জয়ন্ত মালা বড়ুয়া স্থানীয় একটি সাপ্তাহিককে বলেন, আন্তর্জাতিকভাবে আসামকে তুলে ধরার জন্যই এ ক্যালেন্ডারটি প্রস্তুত করা হয়েছে। বহুজাতিক ট্যুর অপারেটরদের দৃষ্টি আকর্ষণই এই ক্যালেন্ডারটি প্রস্তুতের উদ্দেশ্য। প্রিয়াঙ্কা একজন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন তারকা। আর তাঁকে এভাবে উপস্থাপন কোনোভাবেই আসামের সংস্কৃতির বিরুদ্ধাচারণ নয়। আর সব শেষে, ‘তবে কী প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার পরিবর্তে আমরা প্রিয়াঙ্কা গান্ধির ছবি ব্যবহার করব,’ অভিযোগকারীদের উদ্দেশে এমন প্রশ্নও ছুড়ে দেন এই পর্যটন কর্মকর্তা।

মন্তব্য করুন

comments