চট্টগ্রামে বিভিন্ন এলাকার রাস্তায় নতুন যানবাহন এখন নৌকা

90
শেয়ার

নদী কিংবা খাল নয়, নৌকা চলছে চট্টগ্রামের রাস্তায়।শনিবার মধ্যরাত থেকে টানা বৃষ্টিতে এবং সাথে জোয়ারের পানি আসার কারণে তলিয়ে যায় নগরীর অধিকাংশ এলাকার বেশ কিছু এলাকার রাস্তাঘাট।

টানা বৃষ্টিতে নগরীর আগ্রাবাদ, ২ নম্বর গেইট ও চকবাজারসহ বেশকিছু এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এতে বাসাবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পানি উঠায় দুর্ভোগে পড়েন নগরবাসী। এছাড়া চলাচলের জন্য যানবাহন না থাকায় বিপাকে পড়েন তারা।ফলে মানুষের এখন রাস্তায় বের হবার একমাত্র উপায় হয়ে দাঁড়িয়েছে নৌকা।

আগ্রাবাদ এক্সেস রোড

এর আগে মে মাসের শেষের দিকে মোরার প্রভাবে বৃষ্টিপাতসহ চলতি বর্ষায় বেশ কয়েকবার জলাবদ্ধতার ভোগান্তির মধ্য দিয়ে গিয়েছেন চট্টগ্রাম নগরীর বাসিন্দারা। বৃষ্টিতে বার বার জলাবদ্ধতা হওয়ার কারণে অনেকে এখন যাতায়াতের জন্য যানবাহন হিসেবে নৌকাকেই বেছে নিচ্ছেন। রাস্তায় রীতিমত ভাড়ায় চলছে নৌকা। এসব এলাকার বাসিন্দারা অফিস কিংবা অন্যান্য কাজে যাতায়াতের জন্য নৌকা ব্যবহার করছেন যানবাহন হিসেবে।

নগরীর আগ্রাবাদ এক্সেস রোড, বেপারি পাড়া, আগ্রাবাদ সিডিএ, চান্দগাঁও, জিইসি মোড়, বাকলিয়া চকবাজার, বাদুরতলা, হালিশহর, কাতালগঞ্জ, ষোলশহর ২ নম্বর গেইটসহ বিভিন্ন এলাকায় গোড়ালি থেকে হাঁটু পানি জমে যায়, অনেক স্থানে কোমর সমান আবার অনেক এলাকায় গলা পরিমাণ পানি জমে গেছে।পানিতে বিভিন্ন সড়ক, গলিসহ পাড়া মহল্লার বিভিন্ন ভবনের নিচতলার বাসা ডুবে গেছে। এসব এলাকায় রিক্সা, সিএনজি কিংবা অন্যান্য যানবাহন পাওয়াটা দুরূহ ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।অনেক জায়গায় যানবাহন পাওয়া গেলেও পানির কারণে ভাড়া চাচ্ছে তিন গুন চার গুন।ফলে এখানকার বাসিন্দারা নিরুপায় হয়ে নৌকা দিয়ে যাতায়াত করছে।

সূত্রঃ সময় টিভি

ইতিমধ্যে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অফিস করায় ভোগান্তি এড়াতে একটি নৌকা কিনেছে চট্টগ্রাম কর অঞ্চল-৪ কর্তৃপক্ষ।এ এলাকার জলাবদ্ধতা শুধু বৃষ্টির কারণে নয়, রৌদ্রোজ্জ্বল দিনেও জোয়ারের পানিতে সড়ক ডুবে যায়।

চট্টগ্রামের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অফিস পাড়া ও আবাসিক এসব এলাকার বাসিন্দারা জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি চান অতিসত্তর, এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আকুল আবেদন জানান তারা।

মন্তব্য করুন

comments