X

আনোয়ারা পার্কি বীচে পর্যটকদের হয়রানির অভিযোগ

আনোয়ারা পার্কি বিচে পর্যটকদের হয়রানির আভিযোগ পাওয়া গেছে সেখানকার ফটোগ্রাফার এবং বীচ বাইকারদের বিরুদ্ধে।

রিফাত হাসান নামে এক পর্যটক জানান, “আমরা কলেজ থেকে দুই বাস ছাত্র ছাত্রী গত ২২ তারিখ পিকনিকের উদ্দ্যেশ্যে পার্কি বীচে যাই।সমুদ্র পাড়ে গিয়ে আমাদের বন্ধু বান্ধবদের মধ্যে অনেকে সেখানকার ফটোগ্রাফার দিয়ে ছবি তোলায়, কেও নৌকায় চড়ে কেও আবার বাইক ভাড়া করে চালায়।কিন্তু টাকা দেওয়ার সময় দেখা যায় এখানের ফটোগ্রাফার আর বাইক ওয়ালা এর দুই গ্রুপ খুব চালাকীর সাথে পর্যটকদের ফাঁসিয়ে অনেক বেশি টাকা দাবি করে। টাকা না দিতে চাইলে হুমকি ধামকি ও দেওয়া শুরু করে।”

তিনি জানান, “ফটোগ্রাফার ভাড়া করে প্রতি ছবি ৩ টাকা করে। ফটো গ্রাফার বলে ছবি যা ভালো আসবে তা নিতে এবং সেই পরিমান টাকা দিতে। কিন্তু ফটোগ্রাফার ১০ মিনিটে ২০০ এর বেশী ছবি তুলে এবং সব ছবি নিতে হবে বাধ্যতামূলক দাবি করে। উল্লেখ্য যে সে একই ছবি ৮-১৩ বার পর্যন্ত তুলেছিল। ছবি সব নিতে অসম্মতি জানালে ফটোগ্রাফার অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করতে থাকে এবং মারতে উদ্যত হয়। পরে স্থানীয় লোকজন পরিস্থিতি ঠান্ডা করে এবং শেষ পর্যন্ত ঐ সিন্ডিকেট চক্র কে ৬০০ টাকা দিতে হয়।”

আরো কয়েকজন পর্যটকের সাথে কথা বলে জানা যায় তারাও একইভাবে প্রতারণার স্বীকার হয়েছেন।

একইভাবে বীচে পর্যটকদের চালানোর জন্য বাইক ওয়ালারাও মিথ্যা কথা বলে টাকা বাড়িয়ে নেন বলে অভিযোগ করেছেন কয়েকজন পর্যটক।

রিফাত হাসান জানান, “আমাদের ৩ জন বন্ধু সমুদ্র পাড়ে বাইক চালাবে বলে একটি নির্দিষ্ট সীমা পর্যন্ত ৫০ টাকা করে ১৫০ টাকায় ৩ টি বাইক ভাড়া করে। টাকা দেওয়ার সময় তারা বলে তারা ১২০ টাকা করে বলেছে আর ৪ রাউন্ড নাকি চালানো হয়েছে তাই বিল ৪৮০ টাকা।অনেক বাড়াবাড়ির তারা না মানছেনা দেখে সেখানে প্রতি জনকে বাধ্য হয়ে ২৫০ টাকা করে দিতে হয়। অথচ যখন দরদাম হচ্ছিল তখন তারা ৫০ টাকায় দিবেনা বলায় আমাদের ছাত্র রা ওখান থেকে চলেও আসে। পরে ওরা বাইক চালিয়ে এসে ৫০ টাকা করে রাজি হয়েছিল। এভাবে আরো ৩ জন ছাত্র থেকে ১৫০,১২০,৩০০ টাকা হাতিয়ে নেয়।”

তবে তার সাথে পার্কি বীচ এর বোটওয়ালার প্রশংসা করেন তিনি।ভাড়া কম নেওয়ার পাশাপাশি এসব থেকে পরিত্রান পেতে তাদের অনেক সহায়তা করেছিল বলে জানান তিনি।

এই সমস্যা গুলোর কোন সঠিক সমাধান না হলে টুরিস্ট রা অনেক বেশি বিপদ এমনকি যে কোন বড় দূর্ঘটনার স্বীকার হতে পারেন বলে আশংকা প্রকাশ করেন তিনি।একই সাথে প্রশাসন আর ট্যুরিস্ট হেল্প পুলিশ এর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি।

মন্তব্য করুন

comments