২৯ বছর পর চট্টগ্রাম হজ্ব ক্যাম্প পুনরায় চালুর উদ্যোগ

40
শেয়ার

২৯ বছর বন্ধ থাকার পর চট্টগ্রাম হজ্ব ক্যাম্প পুনরায় চালুর নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তবে প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপনের বিষয়টি সামনে আসায় নকশা্র কিছুটা পরিবর্তন করা হচ্ছে।ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে পরিত্যক্ত ভবন আর গাছপালা অপসারণ প্রক্রিয়া। হজ্ব পরিচালক জানিয়েছেন, সহসা ডিপিপি তৈরিতে হাত দেয়া হবে।

তবে ইসলামিক ফাউন্ডেশনকে এক একর জায়গা বরাদ্দ দেয়ার পর, অবশিষ্ট প্রায় সাড়ে ৮ একর এলাকায় কয়েকটি প্রতিষ্ঠান জায়গা চাওয়ায় হজ্ব ক্যাম্পের পুনর্নির্মাণ নিয়ে কেউ কেউ সংশয় প্রকাশ করেছেন।

নানা মহলের দাবির প্রেক্ষিতে এই ক্যাম্প পুনরায় চালুর লক্ষ্যে সম্প্রতি এ উদ্যোগ নেয় সরকার। সেজন্য ডিজিটাল সার্ভের পাশাপাশি চূড়ান্ত হয়েছে নকশা। যাতে ৩টি ডরমেটরিসহ নানা স্থাপনা তৈরি হবে। তবে আলাদা একটি প্রশিক্ষণকেন্দ্র স্থাপনের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়ায় পরিবর্তন আনা হচ্ছে নকশায়।

এখন হজ্ব ক্যাম্পের পরিত্যক্ত ভবন আর নষ্ট হওয়া গাছপালার মূল্য নির্ধারণে কাজ করছে গণপূর্ত ও বন বিভাগ। সংশ্লিষ্টরা জানান, মূল্যায়ন শেষে শুরু হবে পুরনো ভবন আর পড়ে যাওয়া গাছ অপসারণ প্রক্রিয়া। একইসাথে প্রকল্প তৈরীর কাজও। তবে হজ্ব ক্যাম্প এলাকায় জায়গা বরাদ্দ পেতে এখন তৎপর বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। যদিও হজ্ব অফিসের দাবী, বিষয়টি তারা আমলে নিচ্ছে না। তবে এই তৎপরতা বন্ধে, দ্রুত হজ্ব ক্যাম্পের পুনর্নির্মাণ শুরুর তাগিদ দিয়েছেন কেউ কেউ।

উল্লেখ্য,২০১৬ সালের জুলাইয়ে এই হজ্বক্যাম্প পুনরায় চালুর ব্যাপারে নীতিগত সম্মতি দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মন্তব্য করুন

comments