X

নেতাকর্মীদের মাঠ দখলে রাখার আহ্ববান নাসিমের

খালেদা জিয়ার দুর্নীতি মামলার রায় ঘিরে নেতাকর্মীদের রাজপথ দখলে রাখার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ নাসিম।

শনিবার চট্টগ্রামের লালদিঘী মাঠে ১৪ দল আয়োজিত আওয়ামী লীগ নেতা এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর শোকসভায় এ আহ্বান জানান তিনি।

নাসিম বলেন, “৮ তারিখ আসছে, সতর্ক থাকবেন। আদালতের রায় কী হবে জানি না। তবে বলতে চাই, চট্টগ্রামের প্রতিটি পাড়া মহল্লায় আপনাদের মাঠে থাকতে হবে।আমি আপনাদের অনুরোধ করব, ৮ তারিখের আগে মাঠ দখলে রাখবেন। চক্রান্তকারীরা যেন মাঠে নামতে না পারে, তাদের ঘরে ঢুকিয়ে দেবেন।”

শোকসভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিম রাজনৈতিক আন্দোলন সংগ্রামে মহিউদ্দিন চৌধুরীর অবদানের কথা তুলে ধরেন।

মহিউদ্দিন চৌধুরীকে হারিয়ে অসহায়, এতিম হয়ে গেছি উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমি যখনই চট্টগ্রামে এসেছি, তখনি মহিউদ্দিন চৌধুরীকে দেখেছি। তুমি আজ নেই। তুমি এই লালদীঘি মাঠেই চট্টগ্রামে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় চেয়েছিলে। আমি প্রধানমন্ত্রীকে বলে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় দিয়েছি। চট্টগ্রামে যখনই আন্দোলন হয়েছে, তখনি মহিউদ্দিন চৌধুরীর নেতৃত্বে হয়েছে। আমরা ঢাকায় বসে মহিউদ্দিন চৌধুরীর কাছ থেকে আন্দোলন শিখেছি। আমাদের প্রিয় ছিলেন তিনি। মহিউদ্দিন চৌধুরী যখন ছিল, বারবার চট্টগ্রামে বিজয়ী হয়েছে। মহিউদ্দিন চৌধুরীর মৃত্যুতে মনে হচ্ছে আমি আমার আপন ভাইকে হারিয়েছি।’

১৪ দলের সমন্বয়ক মো. নাসিম বলেন, “এ বছরের ডিসেম্বর মাসে নির্বাচন হবে। ডিসেম্বর হলো বিজয়ের মাস। এ মাসে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পরাজিত হতে পারে না।”

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, “আগামী নয় মাস অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। উল্লাস করার আনন্দ করার সময় নাই। মনে রাখবেন, বাঙালির জীবনে গুরুত্বপূর্ণ বছর এই ২০১৮ সাল।”

তিনি বলেন, “আমি আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ১৪ দলের সমন্বয়ক হিসেবে বলে গেলাম, আর কখনও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে না। নির্বাচন হবে সংবিধান অনুযায়ী, শেখ হাসিনার অধীনে।”

নির্বাচন ‘ভণ্ডুল’ করার জন্য আবার চক্রান্ত শুরু হয়েছে মন্তব্য করে দলীয় নেতাকর্মীদের তা রুখে দাঁড়াতে আহ্বান জানান এ আওয়ামী লীগ নেতা।

গত সপ্তাহে ঢাকায় পুলিশের ওপর হামলার জন্য খালেদা জিয়াকে দায়ী করে নাসিম বলেন, “আপনার নির্দেশে পুলিশের ওপর হামলা করে আসামি ছিনতাই করা হয়েছে। ২০১৪ সালের মতো হামলা করা হয়েছে। এতে বিএনপি প্রমাণ করেছে, তারা ডাকাতের দল, সন্ত্রাসের দল।”

শোকসভায় ১৪ দলের নেতারা মহিউদ্দিনের স্মৃতিচারণের পাশাপাশি আগামী সংসদ নির্বাচন নিয়ে কথা বলেন।

চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে শোক সভা সঞ্চালনা করেন ওয়ার্কার্স পার্টি চট্টগ্রাম জেলা কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শরীফ চৌহান, জাসদের সধারণ সম্পাদক জসীম উদ্দিন বাবুল ও নগর আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুক।

বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন, সমাজকল্যাণমন্ত্রী ও ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, সাবেক শিল্পমন্ত্রী ও সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, তরিকত ফেডারেশনের সভাপতি সাংসদ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারি, অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন, জাসদের একাংশের সভাপতি নাজমুল হক প্রধান, গণ আজাদী লীগের সভাপতি এসকে শিকদার, গণতন্ত্রী পার্টির সভাপতি শাহাদৎ হোসেন ও ন্যাপের যুগ্ম সম্পাদক ইসমাইল হোসেন।

মন্তব্য করুন

comments