জাল কাগজপত্র দিয়ে ভর্তি হয়ে ক্লাস করতে এসে আটক

125

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘ক্লাস করতে আসা’এক শিক্ষার্থীর ভর্তির কাগজপত্র যাচাইয়ের পর তা জাল প্রমাণ হওয়ায় তাকে পুলিশে দেওয়া হয়েছে।

গতকাল ( ২৯ জানুয়ারী) সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগে এ ঘটনা ঘটে।

আটক জাহেদুল ইসলাম জিশান সাতকানিয়া উপজেলার পশ্চিম ডেমশা এলাকার বাসিন্দা।তিনি বিভাগ থেকে ভর্তি ফরম নেওয়া থেকে শুরু করে ব্যাংকে টাকা দেওয়ার রশিদ পর্যন্ত তৈরি করে ফেলেছিলেন। তবে কাগজপত্রগুলো ছিল ভুয়া। তাকে এই কাজে সহযোগিতা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া দুই প্রতারক।

তারা হলেন-আরবি বিভাগের সাদ্দাম হোসেন ও আইইর ইনস্টিটিউটের জুলকার নাইন। তারা দুজনই সাড়ে তিন লাখ টাকা ও একটি আইফোনের বিনিময়ে ওই ভুয়া শিক্ষার্থীকে ভর্তির জন্য সহযোগিতা করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের চবি’র সহকারী প্রক্টর লিটন মিত্র বলেন, জাহেদুল ইসলাম মার্কেটিং বিভাগে প্রথম বর্ষের ক্লাস করতে আসার পর সেখানে শিক্ষার্থীদের তালিকায় তার নাম খুঁজে পাওয়া যায়নি।পরে বিভাগীয় প্রধান তার ভর্তির টাকা জমার রশিদ, ডিন অফিস থেকে দেওয়া ভর্তির কাগজপত্র পরীক্ষা করে দেখেন সেগুলো জাল।

লিটন মিত্র বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে জাহেদুল স্বীকার করেছে ভর্তি পরীক্ষার প্রকাশিত ফলে সে অপেক্ষমান তালিকায় ছিল। পরে ভর্তির জন্য সে একটি চক্রের সাথে যোগাযোগ করে।তারা সাড়ে তিন লাখ টাকার বিনিময়ে তাকে ভর্তি করিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দেয়। এ বাবদে সে কিছু টাকা পরিশোধ করলে ওই চক্রের লোকেরা তাকে এসব জাল রশিদ ও কাগজপত্র দেয়।

পরে জাহেদুলকে হাটহাজারী থানায় সোপর্দ করা হয়েছে বলে জানান সহকারী প্রক্টর।

হাটহাজারী থানার ওসি বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে একজনকে আটক করে দেয়া হয়েছে।যাচাই-বাছাই চলছে। তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য করুন

comments